চট্টগ্রাম, বৃহস্পতিবার, ৭ জুলাই ২০২২ , ২৩শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পি কে হালদারকে ফের ১৪ দিনের রিমান্ডে নেয়ার আবেদন

প্রকাশ: ১৭ মে, ২০২২ ১২:৫৯ : অপরাহ্ণ

কয়েক হাজার কোটি টাকার আর্থিক প্রতারণা ও আত্মসাৎ ঘটনার হোতা প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে পি কে হালদাকে ফের ১৪ দিনের রিমান্ডে নেয়ার আবেদন জানিয়েছে ইডি।

তিন দিনের রিমান্ড শেষে আজ মঙ্গলবার (১৭ মে) কলকাতার ব্যাঙ্কশাল আদালতে (স্পেশাল কোর্ট) তোলা হয়েছে পি কে হালদারকে। এ সময় ফের রিমান্ড আবেদন করে ইডি।

এর আগে সকালে ইডির আঞ্চলিক দপ্তর সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্স থেকে পিকে হালদারকে নিয়ে যাওয়ার বিধান নগর মহকুমা হাসপাতালে। সেখানে মেডিকেল চেকআপ করে ফের ৯.৩০ নাগাদ সিজিও কমপ্লেক্স নিয়ে আসা হয়।

এসময় গণমাধ্যমের কর্মীরা প্রশ্ন করলে একটি প্রশ্নেরও উত্তর দেননি পি কে।

১০ হাজার কোটি টাকা তছরুপের মামলার এই হাইপ্রোফাইল আসামী বিগত ৫ দিন প্রায় ১০০ ঘণ্টার বেশি রয়েছেন এক পোশাকে। ইডি সূত্রে বলা হচ্ছে তার নিকট এর আত্মীয় বা পরিচিত পরিচয়ে কেউ এগিয়ে এসে তার বা তার সাথীদের পোশাক দিতে আসেননি।  তাই এক পোশাকেই তাদের দিন পার হচ্ছে।

গত শুক্রবার (১৩ মে) পশ্চিমবঙ্গের ১১ টি জায়গায় তল্লাশি অভিযান চালিয়ে পি কে সহ মোট ৬ জনকে আটক করা হয়। শনিবার দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদের পরে তাদের হেফাজতে নেয় ইডি।

রোববার (১৫ মে) আদালতের নির্দেশে তাদের ৩ দিনের ইডি রিমান্ড শেষে হচ্ছে আজ।

২০০২ সালের ‘প্রিভেনশন অফ মানি লন্ডারিং অ্যাক্ট’ (পিএমএলএ) এর অধীন গ্রেপ্তার হওয়া পি কে হালদার ছাড়াও অন্য নাগরিকরা হলেন প্রাণেশ কুমার হালদার, স্বপন মিত্র ওরফে স্বপন মিস্ত্রি, উত্তম মৈত্র ওরফে উত্তম মিস্ত্রি, ইমাম হোসেন ওরফে ইমন হালদার এবং আমানা সুলতানা ওরফে শারমিন হালদার। গ্রেপ্তারকৃত ৬ জনকেই রোববার পিএমএলএ’ এর আওতাধীন বিশেষ আদালতে তোলা হলে ৫ জনকে ইডির রিমান্ডে নেওয়া হয় একজনকে জেল হেফাজতে পাঠানো হয়।

Print Friendly and PDF