চট্টগ্রাম, বৃহস্পতিবার, ৭ জুলাই ২০২২ , ২৩শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইসরায়েলি বর্বরতার বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন শীর্ষ খ্রিষ্টান ধর্মযাজক (ভিডিও)

প্রকাশ: ১৭ মে, ২০২২ ১:১৭ : অপরাহ্ণ

দখলদার ইসরায়েলি বাহিনীর হাতে নিহত আল জাজিরার সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহের শোকযাত্রায় ইহুদিবাদী পুলিশের মারধরের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে জেরুজালেমের শীর্ষ ক্যাথলিক ধর্মযাজক।

পাশাপাশি ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং ক্যাথলিক গীর্জার প্রতি অসম্মান প্রদর্শনের অভিযোগ এনে গর্জে উঠেছেন তিনি। খবর কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, সোমবার ল্যাটিন প্যাট্রিয়ার্ক পিয়েরবাতিস্তা পিজাবাল্লা সেন্ট জোসেফ হাসপাতালে সাংবাদিকদের সামনে এসব কথা বলেন।

শিরিনের শোকযাত্রায় ইসরায়েলি বাহিনীর ওই হামলাকে ‘শক্তির অসম ব্যবহার’ বলে আখ্যা দিয়েছেন এই খ্রিষ্টান ধর্মযাজক।

তিনি বলেন, হাসপাতাল থেকে জেরুজালেমের পুরোনো শহরের নিকটবর্তী একটি ক্যাথলিক গির্জার দিকে পতাকা ওড়াতে ওড়াতে হাজার হাজার ফিলিস্তিনির শান্তিপূর্ণ এক শোকযাত্রায় ইসরায়েলি বাহিনীর হামলার ঘটনা সমস্ত বিশ্ব দেখেছে। ওই ভিড়ের ওপর ইসরায়েলি বাহিনীর বর্বরতা শক্তির অসম ব্যবহার ছাড়া কিছুই নয়।

পিজাবাল্লা সাংবাদিকদের বলেন, ইসরায়েলি পুলিশের ওই বর্বর হামলা ‘ধর্ম স্বাধীনতার মৌলিক মানবাধিকারসহ আন্তর্জাতিক নিয়ম ও প্রবিধানের’ গুরুতর লঙ্ঘন, যে অধিকার কোনো অবস্থাতেই লঙ্ঘিত হওয়া উচিত নয়।

ধর্মযাজক পিজাবাল্লা আরও বলেন, ‘ইসরায়েলের পুলিশের আগ্রাসন এবং বলপ্রয়োগ, শোকার্তদের ওপর হামলা, লাঠিপেটা করা, স্মোক গ্রেনেড ব্যবহার করা, রাবার বুলেট চালানো, হাসপাতালের রোগীদের ভয় দেখানো ইত্যাদি আন্তর্জাতিক নিয়ম ও বিধিবিধানের চরম লঙ্ঘন।’

সেন্ট জোসেফ হাসপাতালও ওই ঘটনার সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ প্রকাশ করেছে। যেখানে দেখা গেছে, ইসরায়েলি বাহিনী যেখানে সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহের লাশ রাখা হয়েছিল সেখানে হামলা চালায়। তাদের বর্বরতায় সেখানেই ১৩ জনকে আহত হতে দেখা গেছে।

https://youtu.be/D_0dToZbwKM

Print Friendly and PDF