চট্টগ্রাম, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২ , ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আজ ৩২৯০৪ পরিবারকে ঈদ উপহার দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশ: ২৬ এপ্রিল, ২০২২ ১১:৪০ : পূর্বাহ্ণ

ঈদ উপহার হিসেবে আজ মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) সারাদেশে ৩২ হাজার ৯০৪ ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ঘর দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাদের জন্য আবাসন নিশ্চিতে সরকারের লক্ষ্যমাত্রার অংশ হিসেবে এসব ঘর হস্তান্তর করছেন তিনি।

সরকারি বাসভবন গণভবনে ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠানে একযোগে তৃতীয় পর্যায়ের জমির দলিল ও নির্মিত ঘরগুলোর চাবিদান কর্মসূচির উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনার ঈদ উপহার হিসেবে চট্টগ্রামে ১,২১৬টি ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবার ২ শতাংশ জমিসহ ঘর পাচ্ছে। তৃতীয় পর্যায়ে খুলনায় ৫ ধাপে সর্বমোট ৯০৬টি পরিবার গৃহ পাচ্ছে। গোপালগঞ্জে ৬১২টি পরিবারকে তা দেয়া হচ্ছে। ঈদের আগে বগুড়ায় ৯৩০ গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে বিশেষ উপহার হিসেবে জয়পুরহাটের ২০৬টি ভূমিহীন পরিবার পাচ্ছে স্বপ্নের নিবাস। পিরোজপুরে ঘর পাচ্ছে ১,১১১টি গৃহহীন মানুষ। পাবনা জেলায় ৩৭৩ ভূমিহীন পরিবার পাচ্ছে জমিসহ স্বপ্নের ঘর। সেগুলোতে বিদ্যুৎ, রাস্তা, স্যানেটারি, পানিসহ সব সুবিধা রয়েছে।

নওগাঁ জেলায় ৫৪০টি গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে জমিসহ তৈরি বাড়ি। জমি ও গৃহদান কার্যক্রমের অংশ হিসেবে কর্মসূচির তৃতীয় পর্যায়ে জেলায় ৬১০টি পরিবারের অনুকুলে গৃহনির্মাণের বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। বরাদ্দকৃত গৃহনির্মাণের আওতায় ইতোমধ্যে ৫৪০টি গৃহ নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। বাকি ৭০টির  নির্মাণকাজ চলছে।

লালমনিরহাট জেলায় ১,১৮৪টি গৃহহীন পরিবার জমিসহ পাকা বাড়ি পাচ্ছে। এবার প্রতিটি বাড়ি নির্মাণে সামান্য ডিজাইন পরিবর্তন করা হয়েছে। তাই নির্মাণ ব্যয় বাড়ি প্রতি ২ লাখ ৫৯ হাজার ৫০০ টাকা হয়েছে।

বরগুনার খাজুরতলা আশ্রয়ণ প্রকল্পের উপকারভোগীদের মাঝে জমিসহ ঘর হস্তান্তর করা হবে। প্রাথমিকভাবে ২১৯ জনকে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। তাদের পুনর্বাসনের অংশ হিসেবে ২ শতাংশ জমিতে ২ রুমের পাকা ঘরের সঙ্গে রয়েছে রান্নাঘর, বাথরুম ও ১টি বারান্দা। এছাড়া আশ্রয়ণ প্রকল্পের প্রত্যেক ঘরেই জ্বলবে বিদ্যুতের আলো।

মুজিববর্ষে রংপুরের পীরগঞ্জে তৃতীয় পর্যায়ে ২৪০টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার পুনর্বাসনের জন্য বরাদ্দ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে আজ প্রধানমন্ত্রী ১২০টি পরিবারকে জমি হস্তান্তর করবেন।

প্রাধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে চাঁদপুরের ৭৫২ পরিবারকে ভূমিসহ গৃহ হস্তান্তর করা হবে।
রাঙামাটিতে মোট ২০৬টি ঘর উপকারভোগীদের মাঝে হস্তান্তর করা হবে। শেখ হাসিনার উপহারের পাকা ঘর পাচ্ছে লক্ষ্মীপুর জেলার ভূমিহীন ও গৃহহীন ৩৫০টি পরিবার। তৃতীয় পর্যায়ে জেলার ৫টি উপজেলায় ২৬টি স্থানে ১ হাজার ৪৪২টি ঘরের নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। এর মধ্যে ৩৫০টি পরিবারের মাঝে ঘর হস্তান্তর করা হবে।

ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলার ১৫টি পরিবারের জন্য নির্মিত ঘরের চাবি ও জমির দলিল উপকারভোগীদের মাঝে হস্তান্তর করা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঈদের উপহার হিসেবে পাকা ঘর পাচ্ছে যশোরের ভূমিহীন ও গৃহহীন ৬১০টি পরিবার।

নীলফামারী জেলায় সরকার প্রধানের উপহারের নতুন ঘর পাচ্ছে ১,২০৫ গৃহহীন পরিবার। তৃতীয় পর্যায়ে এসব ঘরের প্রতিটির নির্মাণ খরচ হয়েছে ২ লাখ ৫৯ হাজার ৫০০ টাকা করে। নোয়াখালীতে বঙ্গবন্ধু কন্যার ঈদ উপহার হিসেবে পাকা ঘর পাচ্ছে ৩৬৮টি ভূমিহীন পরিবার।

Print Friendly and PDF