চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪ , ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বেসরকারী পর্যায়ে চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল চিকিৎসা সেবায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে – ডাঃ সামন্ত লাল সেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রী

প্রকাশ: ৬ জুলাই, ২০২৪ ১০:১৭ : পূর্বাহ্ণ

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী ডাঃ সামন্ত লাল সেন অদ্য ০৫/০৭/২০২৪ তারিখ চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল পরিদর্শন করেন এবং হাসপাতালের ১০০ শয্যা বিশিষ্ট সম্প্রসারিত নবজাতক ওয়ার্ডের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।
এ উপলক্ষে হাসপাতালের লেকচার গ্যালারীতে কার্যনির্বাহী কমিটির ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট জনাব সৈয়দ মোহাম্মদ মোরশেদ হোসেন এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মাননীয় মহাপরিচালক প্রফেসর ডাঃ আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম।

 

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল প্রফেসর ডাঃ সাহেনা আক্তার, হাসপাতালের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও স্বাচিব কেন্দ্রিয় কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ডাঃ নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও হাসপাতালের কার্যনির্বাহী কমিটির জেনারেল সেক্রেটারী জনাব মোহাম্মদ রেজাউল করিম আজাদ।

 

 

প্রধান অতিথি মাননীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রাম আমার অত্যন্ত প্রিয় একটি জায়গা। আমি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজেরই একজন ছাত্র। সুতরাং এই চট্টগ্রামের প্রতি আমার অনেক দায়বদ্ধতা রয়েছে। এই হাসপাতালে আজ থেকে প্রায় ৪০ বছর আগে আমি একবার আসি প্রফেসর ফজলুল করিম স্যারের সাথে। স্যার ছিলেন এই হাসপাতালের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা। তখন শিশু হাসপাতাল ছিল অত্যন্ত ছোট্ট পরিসরে। আজ সেই শিশু হাসপাতাল দেখে আমি সত্যিই অভিভূত। এই হাসপাতালের এনআইসিইউ, শিশু আইসিইউ, এডাল্ট আইসিইউ, সিসিইউ, ক্যান্সার বিভাগের চিকিৎসা সেবা দেখে আমি অনেক খুশি হয়েছি। অনেক সরকারী হাসপাতালেও এধরনের বিশেষায়িত চিকিৎসা সেবা নাই। বেসরকারী পর্যায়ে চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে। আমরা চিকিৎসা সেবার মান উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি। আমি এজন্য প্রতিনিয়ত দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ঘুরে বেড়াচ্ছি এবং প্রান্তিক পর্যায়ে চিকিৎসা সেবার উন্নয়নের জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। প্রান্তিক পর্যায়ে চিকিৎসা সেবার উন্নয়ন হলে মানুষকে চিকিৎসা সেবার জন্য ব্যাপক হারে আর শহরে আসতে হবেনা। আমাদেরকে চিকিৎসা সেবার গুনগত মান উন্নয়ন, দক্ষ ও মান সম্পন্ন ডাক্তার তৈরি করতে হবে। আমার বা সরকারের একার পক্ষে সবকিছু করা সম্ভব নয়। এজন্য আপনাদের সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন। তিনি চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের উন্নয়নে সর্বাত্বক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

 

 

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি প্রফেসর ডাঃ আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম বলেন, মা ও শিশু হাসপাতাল বাংলাদেশে বেসরকারী পর্যায়ে চিকিৎসা সেবার মান উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। এই হাসপাতালের চিকিৎসা শিক্ষা ও চিকিৎসা সেবার অনেক সুনাম রয়েছে। বিশেষ করে বিশেষায়িত চিকিৎসা সেবায় মা ও শিশু হাসপাতাল অনেক এগিয়ে রয়েছে। তিনি আরো বলেন, আমি অনেকবার এই হাসপাতালে এসেছি এবং হাসপাতালের সার্বিক বিষয়ে অবগত আছি। হাসপাতালের সার্বিক উন্নয়নে সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতার জন্য তিনি আশ্বাস প্রদান করেন।

 

এরআগে মাননীয় প্রধান অতিথি হাসপাতালের ক্যান্সার বিভাগ, এডাল্ট আইসিইউ, সিসিইউ, শিশু আইসিইউ ও বিশেষায়িত শিশু বিকাশ কেন্দ্র পরিদর্শন করেন এবং হাসপাতালের এসব বিশেষায়িত সেবার ভ‚য়সী প্রশংসা করেন।
অনুষ্ঠানের সভাপতি জনাব সৈয়দ মোহাম্মদ মোরশেদ হোসেন প্রধান অতিথি মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় ও বিশেষ অতিথি মাননীয় মহাপরিচালক মহোদয়কে হাসপাতাল পরিদর্শনে আসার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

 

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (হাসপাতাল) ডাঃ আবু হুসাইন মোহাম্মদ মনিরুল আহসান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন) ডাঃ মোঃ হারুনুর রশিদ, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জনাব মোঃ তসলিম উদ্দিন, চট্টগ্রামের বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডাঃ ইফতেখার আহমেদ, মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের পিএস (উপ-সচিব) জনাব কমল কুমার বিশ্বাস, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (সমন্বয়) ডাঃ আবু সৈয়দ মোহাম্মদ ইমতিয়াজ হোসাইন, চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ ইলিয়াস, চট্টগ্রাম কিডনী ফাউন্ডেশনের সভাপতি ডাঃ মইনুল ইসলাম মাহমুদ, হাসপাতালের কার্যনির্বাহী কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট জনাব আবদুল মান্নান রানা, ইঞ্জিঃ মোঃ জাবেদ আবছার চৌধুরী, ডাঃ পারভেজ ইকবাল শরীফ, জয়েন্ট জেনারেল সেক্রেটারী জনাব সৈয়দ মোঃ আজিজ নাজিমউদ্দিন, ট্রেজারার অধ্যক্ষ ড. লায়ন মোহাম্মদ সানাউল্লাহ, জয়েন্ট ট্রেজারার জনাব এস এম কুতুব উদ্দিন, অর্গানাইজিং সেক্রেটারী জনাব মোহাম্মদ সাগির, স্পোর্টস এন্ড কালচারাল সেক্রেটারী জনাব মোঃ আহসান উল্লাহ, ডোনার মেম্বার জনাব মোঃ শহীদ উল্লাহ, মেম্বার প্রফেসর ডাঃ কামরুন নেসা (রুনা), প্রফেসর ড. মোঃ জাহিদ হোসেন শরীফ, আলহাজ¦ মোঃ হারুন ইউসুফ, জনাব এ এস এম জাফর, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর জনাব জাফরুল হায়দার চৌধুরী সবুজ, মেডিকেল কলেজের উপদেষ্টা প্রফেসর এ এস এম মোস্তাক আহমেদ, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রফেসর অসীম কুমার বড়ুয়া, হাসাতালের পরিচালক (প্রশাসন) ডাঃ মোঃ নূরুল হক, প্রফেসর ডাঃ অলক নন্দী, ক্যান্সার ইনষ্টিটিউটের পরিচালক ডাঃ শেফাতুজ্জাহান, উপ-পরিচালক (প্রশাসন) জনাব মোহাম্মদ মোশাররফ হোসাইন, উপ-পরিচালক (মেডিকেল এ্যাফেয়ার্স) ডাঃ এ কে এম আশরাফুল করিম, উপ-পরিচালক (ফিন্যান্স) মনজুরুল আলম চৌধুরী, উপ-পরিচালক (প্রশাসন, আইসিএইচ) ডাঃ মোঃ আবু সৈয়দ চৌধুরী সহ প্রমুখ।
এছাড়া হাসপাতাল ও মেডিকেল কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকা, নার্সিং ইনষ্টিটিউট ও নার্সিং কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকা, ডাক্তার, নার্স, ছাত্র-ছাত্রী ও কর্মকর্তা, কর্মচারীগণ অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করেন।

 

 

Print Friendly and PDF