চট্টগ্রাম, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২২ , ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ছাতা-জায়নামাজ ছাড়া কিছু আনা যাবে না ঈদগাহে

প্রকাশ: ১ মে, ২০২২ ১২:১৭ : অপরাহ্ণ

জাতীয় ঈদগাহে পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ পড়তে আসা মুসল্লিরা জায়নামাজ ও ছাতা ছাড়া কোনো কিছু সঙ্গে আনতে পারবেন না। প্রবেশ করার আগে প্রত্যেক মুসল্লিকে তল্লাশি করা হবে। ঈদগাহে থাকবে চারস্তরের নিরাপত্তা।

রোববার (১ মে) জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ডিএমপির নেওয়া নিরাপত্তাব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ঈদ জামাতে আসা মুসল্লিরা জায়নামাজ ও ছাতা সঙ্গে নিয়ে আসতে পারবেন। এর বাইরে কোনো কিছু সঙ্গে নিয়ে আসতে নিষেধ করছি আমরা। এছাড়াও প্রত্যেকের তল্লাশির মধ্য দিয়ে আর্চওয়ে গেট দিয়ে ঈদগাহে প্রবেশ করতে হবে। কারো সঙ্গে ব্যাগ থাকলে ব্যাগও তল্লাশি করা হবে।

কমিশনার বলেন, এবারের ঈদে ঢাকায় ছোট বড় ঈদগাহ এবং মসজিদ মিলে মোট ১৪৬৮টি স্থানে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। সবকটিতেই নিরাপত্তা দেবে ডিএমপি। এছাড়াও জাতীয় ঈদগাহে জামাতের আগে সুইপিং করবে বোমা ডিস্পোজাল ইউনিট, চারপাশে থাকবে সিসিটিভি ক্যামেরা। ক্যামেরার ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করবে ডিএমপির টিম।
তল্লাশি করতে সময় লাগার কারণে ঈদগাহের জামাতে মুসল্লিদের নির্ধারিত সময়ের আগে আসার অনুরোধ করেন ডিএমপি কমিশনার। বৈরী আবহাওয়ার কারণে ঈদের প্রধান জামাত বায়তুল মোকাররমে অনুষ্ঠিত হলে সেখানেও একই ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

জাতীয় ঈদগাহে প্রায় ৩৫ হাজার মুসল্লি একসঙ্গে ঈদের জামাত আদায় করতে পারবে। নারীদের জন্য নামাজের ব্যবস্থা রয়েছে। প্রায় সাড়ে তিন হাজার নারী একসঙ্গে নামাজ আদায় করতে পারবেন জাতীয় ঈদগাহে।

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে গত দুইবছর জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে ঈদের জামাত হয়নি। এবার করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে থাকায় জাতীয় ঈদগাহে অনুষ্ঠিত হবে ঈদুল ফিতরের জামাত। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২ বা ৩ মে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে।

Print Friendly and PDF