চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১ , ৬ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

এবারও ভিন্ন পরিবেশে পালিত হচ্ছে হজ

প্রকাশ: ১৯ জুলাই, ২০২১ ১২:২৯ : অপরাহ্ণ

ভিন্ন পরিবেশে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনে আজ পালিত হচ্ছে পবিত্র হজ। করোনা অতিমারির কারণে এবছর সীমিত পরিসরে ৬০ হাজার নির্বাচিত হাজি এতে অংশ নিচ্ছেন। ফজরের নামাজ আদায় করে মিনা হতে আরাফাত ময়দানে উপস্থিত হন হাজিরা। দুপুরে মসজিদ নামিরাহ থেকে হজের খুতবা দেবেন কাবার মসজিদুল হারামের অন্যতম ইমাম ও খতিব শায়খ ডক্টর বানদার বালিলাহ।

আত্মশুদ্ধি ও পাপমুক্তির আকুল বাসনা নিয়ে হাজার হাজার নারী-পুরুষের লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক ধ্বনিতে এখন মুখর ঐতিহাসিক আরাফাতের ময়দান। এই তালবিয়া পড়ে মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে নিজের উপস্থিতি জানান দিচ্ছেন আল্লাহর মেহমানরা। করোনা অতিমারির কারণে দ্বিতীয় বছরের মতো সীমিত পরিসরে অনুষ্ঠিত হচ্ছে পবিত্র হজ।

সোমবার ফজরের নামাজ শেষে হাজিরা মিনা থেকে নির্ধারিত বাসে করে উপস্থিত হচ্ছেন আরাফাতের ময়দানে। সূর্যাস্ত পর্যন্ত এখানেই ব্যস্ত থাকবেন ইবাদত-বন্দেগীতে। নিজের জন্য, সকলের জন্য করবেন দোয়া।

ইসলামি শরীয়াহ অনুযায়ী প্রতিবছর হজের সময় জিলহজ মাসের নয় তারিখে ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের সাথে বদলানো হয় কাবা শরীফের গিলাফ।

দুপুরে হবে হজের মূল খুতবা। মসজিদে নামিরাহ থেকে এবার হজের খুতবা দেবেন কাবার মসজিদুল হারামের ইমাম ও খতিব শায়খ ডক্টর বানদার বালিলাহ। বাংলাসহ ৯টি ভাষায় অনুবাদ করে প্রচার করা হবে খুতবার বক্তব্য।

খুতবার পর এক আজানে জোহর ও আসরের নামাজ আদায় করবেন হাজিরা। সূর্যাস্ত পর্যন্ত এখানেই অবস্থান করে মুজদালিফায় গিয়ে আবারো এক আজানে মাগরিব ও এশার নামাজ আদায় করবেন। মুজদালিফায় খোলা আকাশের নিচে রাতে থেকে পরদিন আবারো মিনায় ফিরে আল­াহর সন্তুষ্টির জন্য পশু কোরবানি ও শয়তানকে পাথর নিক্ষেপ করবেন। এরপর মাথার চুল ছেঁটে মক্কায় গিয়ে কাবা শরিফ তাওয়াফের মধ্য দিয়ে শেষ করবেন হজের যাবতীয় আনুষ্ঠানিকতা।

Print Friendly and PDF