চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১ , ৬ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কর্মসূচী

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দুই বছর

প্রকাশ: ৩০ ডিসেম্বর, ২০২০ ৯:৫৪ : পূর্বাহ্ণ

এই নির্বাচনের মাধ্যমেই দেশে গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত আছে- এমন দাবি করে দিনটিকে ‘গণতন্ত্রের বিজয়’ দিবস পালন করবে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। বিএনপি মনে করে, রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে জনগণের ভোটাধিকার হত্যা করা হয়েছে এই নির্বাচনের মাধ্যমে। তাই দিনটিকে গণতন্ত্র হত্যা দিবস পালন করবে দলটি।

২০১৮ সালের ৩০শে ডিসেম্বর। বড় দুই রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগের মধ্যে শেষ হয় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণ। টানা তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আওয়ামী লীগ।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দুই বছর পূর্ণ হবে বুধবার। আওয়আমী লীগ মনে করে, দিনটিতে গণতন্ত্রের বিজয় হয়েছে। আর বিএনপি মনে করে, এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে হত্যা করা হয়েছে গণতন্ত্র। এমন বিশ্বাসে দিনটিকে পালনে ভিন্ন কর্মসূচী দিয়েছে দু’দল।।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো: হুমায়ুন কবির বলেন, “২০১৮ সালের নির্বাচনের পর দেশ সুন্দরভাবে পরিচালিত হয়েছে। দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রয়েছে। স্বাভাবিকভাবে এটা আমাদের বিজয়।”

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেল বলেন, “আমরা মনে করি যেভাবে জনগনের ভোট চুরি করা হয়েছে সেটা কালো অধ্যায় এবং এ দিনেই গণতন্ত্রকে হত্যা করা হয়েছে।”

দিনটি পালনে সমাবেশ ছাড়াও রাজধানীর প্রতিটি আওয়ামী লীগ থানা-ওয়ার্ড অফিসে থাকবে লাল-সবুজে ‘নৌকা’র আলোকসজ্জা। একইদিন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বাতিল কোরে পুননির্বাচনের দাবিতে সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করবে বিএনপি।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান বলেন, “তাদের (বিএনপি) এটা অভ্যাস হয়েছে, বিরধিতা করতেই হবে। না হলে তাদের রাজনীতি থাকেনা। দেউলিয়াপনার শেষ দিকে যা হয় তাই হয়েছে।”

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সহ-সভাপতি কে এম মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, “বিএনপি গণতান্ত্রিক দল। এজন্য গণতন্ত্র পনরুদ্ধারে দেশবাসীকে উৎসাহ দেয়ার হচ্ছে। যা শান্তিপূর্ণভাবেই হবে।”

দিনটি ঘিরে পাল্টা কর্মসূচী থাকলেও সহিংসতার আশঙ্কা করছে না দুদলের নেতারা।

Print Friendly and PDF