চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০ , ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

এইচএসসি পরীক্ষা বাতিল, জেএসসি-এসএসসি মূল্যায়নে ফল

প্রকাশ: ৭ অক্টোবর, ২০২০ ২:২১ : অপরাহ্ণ

এ বছর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা সরাসরি অনুষ্ঠিত হবে না। এসএসসি-জেএসসির গড় করে পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করে ফলাফল দেওয়া হবে। ফলাফল জানানো হবে ডিসেম্বরের মধ্যে।

বুধবার দুপুর সোয়া ১টার দিকে ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

তিনি বলেন, এ বছর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা সরাসরি অনুষ্ঠিত হবে না। এসএসসি-জিএসসির গড় করে পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘পরীক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষক এবং পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট ব্যবস্থাপক, সাংবাদিক ও সুশীল সমাজসহ বিভিন্ন অংশীজনদের সঙ্গে যে আলাপ-আলোচনা হয়েছে, তার ওপর ভিত্তি করে আমরা ২০২০ সালের এইচএসসি পরীক্ষা সরাসরি গ্রহণ না করে ভিন্নভাবে মূল্যায়ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

তিনি বলেন, ‘যারা এইচএসসি পরীক্ষার্থী, তারা প্রত্যেকে দুটি করে পাবলিক পরীক্ষা অতিক্রম করে এসেছে- জেএসসি ও এসএসসি। সেই দুটি পরীক্ষার ফলাফলের গড় করে তাদের এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল নির্ধারণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এ বিষয়ে সার্বিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য একটি কমিটি গঠন করে দেওয়া হচ্ছে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘যারা বিভাগ পরিবর্তন করেছে, তারা মনে করতে পারে যে জেএসসি এবং এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ওপর মূল্যায়ন করলে তাদের মূল্যায়ন সঠিক হবে না। ফলাফল মূল্যায়নের বিষয়ে আমরা একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করেছি। এই কমিটিতে আমাদের মন্ত্রণালয়ের (শিক্ষা মন্ত্রণালয়) একজন অতিরিক্ত সচিব আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যান, যিনি সকল বোর্ডের সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করেন, তিনি এই পরামর্শক কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।’

কমিটির অন্যান্য সদস্যদের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘কমিটিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের একজন করে প্রতিনিধি এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ড ও মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান থাকবেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা আশা করছি এই সকল বিষয় বিবেচনায় নিয়ে এবছর ডিসেম্বরের মধ্যে চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করব। যাতে জানুয়ারি থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি শুরু হতে পারে।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মাহাবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হকসহ সব শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানরা।

করোনার কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। গত ১ এপ্রিলে এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর কথা ছিল। করোনার কারণে তা স্থগিত করা হয়। তবে আগামী নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে এই পরীক্ষা নেয়া যায় কিনা তা নিয়ে এতদিন নীতিনির্ধারকদের মধ্যে আলোচনা চলছিল। তবে শেষ পর্যন্ত পরীক্ষা না নেয়ার সিদ্ধান্ত নিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এইচএসসি পরীক্ষা কবে অনুষ্ঠিত হবে, সে বিষয়ে এর আগে কয়েকদফা আলোচনা হলেও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া যায়নি। তবে শিক্ষামন্ত্রী এবং শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরীক্ষার্থীদের প্রস্তুতি অব্যাহত রাখার উপদেশ দিয়ে জানিয়েছিলেন পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার ১৫ দিন আগে নোটিশ দেয়া হবে।

এইচএসসির পরীক্ষার মতো বড় আয়োজন করা হলে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে, এমন আশঙ্কা থেকেই এতদিন পরীক্ষা আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। এর মধ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বারবার আশ্বস্ত করা হয়েছিল যে জনস্বাস্থ্যকে ঝুঁকিতে ফেলে পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত দেয়া হবে না।

বাংলাদেশে ২০২০ সালের উচ্চ মাধ্যমিক ও সমমানের পর্যায়ে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৩ লাখ ৬৫ হাজার ৭৮৯ জন।

Print Friendly and PDF

———