চট্টগ্রাম, রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ , ৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কাশিমপুর কারাগারের সেই যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদি পালিয়েছেন

প্রকাশ: ৭ আগস্ট, ২০২০ ৭:০০ : অপরাহ্ণ

কয়েদি আবু বকর সিদ্দিক কাশিমপুর-২ কারাগার থেকে পালিয়ে গেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লকআপের পর থেকে খোঁজাখুঁজি করেও তাকে কারাগারের ভেতরে কোথাও পাওয়া যায়নি। তাকে খুঁজে না পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কাশিমপুর কারাগারের তত্ত্বাবধায়ক জাহানারা বেগম। তিনি বলেন, ‘এ ঘটনায় কারারক্ষীরা জড়িত থাকতে পারে বা তাদের অবহেলার কারণেও বন্দী পালিয়ে যেতে পারে। আমরা তদন্ত করে দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।’

আবু বকর সিদ্দিক ২০১১ সালে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে এসেছিলেন ফাঁসির আসামি হিসেবে। ২০১২ সালের ২৭ জুলাই তার সাজা সংশোধন করে তাকে যাবজ্জীবন দেওয়া হয়। কাশিমপুর কারাগার সূত্রে জানা গেছে, আবু বকর সিদ্দিকের বাড়ি সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার আবাদ চণ্ডীপুরে।

কাশিমপুরের কারাগারের একজন কর্মকর্তা জানান, ২০১৫ সালের ১৩ মে সন্ধ্যায়ও তিনি আত্মগোপন করে সেল এলাকায় সেপটিক ট্যাংকের ভেতরে লুকিয়ে ছিলেন। অনেক খোঁজাখুঁজি শেষে পরদিন তাকে একটি ট্যাংকের ভেতর থেকে উদ্ধার করা হয়।

জাহানারা বেগম বলেন, আবু বকর সিদ্দিক জেলের ১৮ ফুট দেয়াল বেয়ে চলে গেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। সাতক্ষীয়ার তার বাড়িতে লোক গেছে। সংশ্লিষ্ট জেলার পুলিশকেও বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে।

এ ঘটনায় আজ শুক্রবার বিকাল সোয়া ৪টার দিকে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোনাবাড়ি থানায় এজাহার দায়ের করা হয়েছে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোনাবাড়ি থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. জাহাঙ্গীর আলম এজাহারের বরাত দিয়ে জানান, কারাগার-২ এর জেলার মো. বাহারুল ইসলাম কোনাবাড়ি থানায় একজন কয়েদি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা বর্ণনা করে একটি অভিযোগ দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লকআপের পর থেকে আজ বিকাল ৪টা পর্যন্ত ওই কয়েদিকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

এএসআই আরো জানান, আবু বকর সিদ্দিকের বিরুদ্ধে ২০০২ সালের মার্চ মাসে সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়। তাকে ফাঁসির আসামি হিসেবে ২০১১ সালে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। তার সাজা সংশোধন করে ২০১২ সালের ২৭ জুলাই আদালত তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেন।

Print Friendly and PDF

———