চট্টগ্রাম, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০ , ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

হঠাৎ পাল্টে গেলেন ট্রাম্প, স্বীকার করলেন করোনার ‘ভয়াবহতা’

প্রকাশ: ২২ জুলাই, ২০২০ ৯:৪৬ : পূর্বাহ্ণ

অবশেষে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির ভয়াবহতা ও ভবিষ্যত উপলব্ধি করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। একইসঙ্গে তিনি স্বীকার করেছেন. ‘আগামী দিনগুলোতে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে যেতে পারে।’

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (বাংলাদেশ সময় বুধবার) বেশ কয়েকদিনের বিরতির পর যুক্তরাষ্ট্রের করোনা প্রাদুর্ভাব ও বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে আসেন ট্রাম্প।

তবে গতকালের সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্পের বক্তব্য ছিল আগের দিনগুলোর তুলনায় সম্পূর্ণ ভিন্ন। তিনি দেশবাসীকে মাস্ক পরার মাস্ক পরার ওপর জোর দেন। অথচ কিছুদিন আগেই তিনি নিজেই মাস্ক পরতেন না। এমনকি করোনা ভাইরাস নিয়ে উদ্ভট বক্তব্য দিয়ে হাস্যরসের পাত্র হয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন, ‘করোনা মহামারি মোকাবিলায় মাস্কের একটা প্রভাব রয়েছে। আমি দেশবাসীকে মাস্ক পরে ‘দেশপ্রেম’ দেখানোর আহ্বান জানাই।’ তবে ওইসময় তার মুখে মাস্ক ছিল না।

যুক্তরাষ্ট্রে দিন দিন করোনা পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে। এই কঠিন সময়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সহচররা তাকে বুঝেশুনে পদক্ষেপ নেয়ার চাপ দিচ্ছেন।

এর আগে গেল এপ্রিলে হোয়াইট হাউসে করোনা নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে বেফাঁস মন্তব্য করে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন ট্রাম্প। ওই সময় তিনি ইনজেকশনের মাধ্যমে শরীরে জীবাণুনাশক প্রয়োগ করে করোনা চিকিৎসার পরামর্শ দিয়েছিলেন। ওই ঘটনার পর থেকেই হোয়াইট হাউসে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলন বন্ধ করে দেন তিনি।

দুই মাসেরও বেশি সময় পর এবার সংবাদ সম্মেলনে কথাবাতায় ট্রাম্প ছিলের আগের চেয়ে বেশ পরিমিত। মার্কিন স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে তাল মিলিয়েই তাকে বক্তব্য রাখতে দেখা গেছে।

ট্রাম্প বলেন, ‘এটা (করোনাজনিত মহামারি পরিস্থিতি) ভালোর দিকে যাওয়ার আগে দুর্ভাগ্যজনকভাবে হয়তো আরো খারাপের দিকে যাবে। আমি কোনো বিষয় নিয়ে এভাবে বলতে পছন্দ করি না, কিন্তু পরিস্থিতি এমনটাই দাঁড়িয়েছে।’

ট্রাম্প বলেন, ‘আমরা সবাইকে বলছি, যখন সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা সম্ভব হবে না, তখন মাস্ক পরুন। আপনার মাস্ক পরতে ভালো লাগুক আর নাই লাগুক, এটা পরার একটা প্রভাব আছে। মাস্ক পরলে (মহামারি মোকাবিলায়) প্রভাব পড়বেই। আর আমাদের যা যা করা সম্ভব, সবই করা প্রয়োজন।’

Print Friendly and PDF

———