চট্টগ্রাম, সোমবার, ১ জুন ২০২০ , ১৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা নিহত

প্রকাশ: ১৭ মে, ২০২০ ১০:১৩ : পূর্বাহ্ণ

কক্সবাজারের টেকনাফে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের সঙ্গে “বন্দুকযুদ্ধে” মো: সাকের (২২) নামের এক রোহিঙ্গা ইয়াবাকারবারি নিহত হয়েছে। রবিবার (১৭ মে) ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে টেকনাফ উপজেলার নয়াপাড়া নাফ নদীস্থ বেড়িবাঁধ এলাকায় এঘটনা ঘটে।

নিহত রোহিঙ্গা ইয়াবাকারবারি উখিয়ার বালুখালী ৯নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ব্লক-এইচ/৬ এর বাসিন্দা খাইরুল আমিনের ছেলে। বিজিবি ঘটনাস্থলে তল্লাশি করে ২লাখ ৪০হাজার ইয়াবা ও একটি দেশীয় তৈরি লম্বা বন্দুক ও ২ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করে।

টেকনাফ ২নং বিজিবি অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, রবিবার (১৭ মে) ভোর সাড়ে ৪টার দিকে টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের নয়াপাড়া বিওপির বিশেষ টহল দল মাদকের চালান আসার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নয়াপাড়া লবণের মাঠে অবস্থান নেয়। কিছুক্ষণ পর সেখান দিয়ে কয়েকজন লোক বস্তা নিয়ে মিয়ানমারের ওপার থেকে নাফ নদী পার হয়ে বেড়িবাঁধে পৌঁছালে তাদের থামানোর জন্য চ্যালেঞ্জ করা হয়। কিন্তু, মাদক কারবারি চক্রের সদস্যরা বিজিবি’কে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। এতে বিজিবি’র দুই সদস্য আহত হয়। পরে বিজিবিও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলিবর্ষণ করলে মাদক কারবারী চক্রের সদস্যরা পালিয়ে যায়।

এরপর ঘটনাস্থল তল্লাশি করে ২লাখ ৪০হাজার ইয়াবা, ১টি দেশীয় তৈরী লম্বা বন্দুক, ২ রাউন্ড কার্তুজ ও ১টি ধারালো কিরিচসহ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ওই ইয়াবাকারবারিকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে আহত বিজিবি জওয়ানদের চিকিৎসা দিয়ে গুলিবিদ্ধ মাদক কারবারীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে। এবিষয়ে সংশ্লিষ্ট আইনে টেকনাফ থানায় মামলা রুজুর প্রস্তুতি চলছে।

Print Friendly and PDF

———