চট্টগ্রাম, বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০ , ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আবারো বাংলাদেশের দিকে রোহিঙ্গা ঠেলে দিচ্ছে মিয়ানমার

প্রকাশ: ১৯ এপ্রিল, ২০২০ ১০:৩৮ : পূর্বাহ্ণ

বাংলাদেশের টেকনাফ উপকূলে প্রায় চারশ রোহিঙ্গাকে উদ্ধারের কয়েকদিন যেতে না যেতেই আরও অন্তত পাঁচশ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশের দিকে ঠেলে দিচ্ছে মিয়ানমার। একটি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন এই খবর দিয়েছে।

সম্প্রতি টেকনাফ উপকূলে সাগরে ভাসমান একটি ট্রলার থেকে উদ্ধার ৩৯৬ রোহিঙ্গাকে ১৪ দিনের সংঘনিরোধে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনার ক’দিন না যেতেই মিয়ানমার ফের পাঁচ শতাধিক রোহিঙ্গাবাহী দুটি ট্রলার বাংলাদেশ অভিমুখে ঠেলে দেয়ার খবর এল।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা ফরটিফাই রাইটস শুক্রবার একটি বার্তা সংস্থাকে জানিয়েছে, করোনাভাইরাস মহামারির কারণে পাঁচ শতাধিক রোহিঙ্গা নিয়ে এই দুটি ট্রলারকে মালয়েশিয়া ও থাইল্যান্ড তাদের সীমানায় ঢুকতে দেয়নি। তারা ১৫ দিন ধরে মিয়ানমার জলসীমায় আটকে রয়েছে। দেশটির নৌবাহিনী রোহিঙ্গাবোঝাই ট্রলার দুটো বাংলাদেশের জলসীমার দিকে ঠেলে দেয়ার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে।

ফরটিফাই রাইটসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ম্যাথু স্মিথ বলেছেন, রোহিঙ্গাবোঝাই ভাসমান ট্রলারগুলো উদ্ধারের জন্য আঞ্চলিক সরকারগুলোর সমন্বিত চেষ্টা দরকার। এভাবে রোহিঙ্গাদের অনিশ্চিত সমুদ্রযাত্রায় ঠেলে দেওয়া বেআইনি এবং মৃত্যুদণ্ডের মতো।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনটির তথ্য অনুযায়ী, ১৬ এপ্রিল দুই শতাধিক রোহিঙ্গাবোঝাই আরেকটি ট্রলার মালয়েশিয়া তাদের জলসীমায় শনাক্ত করেছে। একইসঙ্গে প্রয়োজনীয় রসদ দিয়ে ট্রলারটিকে মালয়েশিয়া গভীর সমুদ্রের দিকে ফেরত পাঠিয়ে দেয় বলেও দাবি করেছে সংগঠনটি।

গেল বুধবার রাতে টেকনাফ উপকূলে একটি ট্রলার থেকে ৩৯৬ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করেন বাংলাদেশ কোস্টগার্ডের সদস্যরা। এই রোহিঙ্গারা দুই মাস আগে মালয়েশিয়ার উদ্দেশে সাগরে নেমেছিল। তবে তাদের সেই চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পর মিয়ানমারের জলসীমায় ফিরে এলে দেশটির নৌবাহিনী রোহিঙ্গাবোঝাই ট্রলারটি বাংলাদেশের দিকে ঠেলে দেয়। কিন্তু এর আগেই অনাহারে অসুস্থ হয়ে ট্রলারে মারা গেছে অর্ধশত রোহিঙ্গা।

Print Friendly and PDF

———