চট্টগ্রাম, সোমবার, ১ জুন ২০২০ , ১৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মালিক-কর্মচারীরা কোয়ারেন্টাইনে

চট্টগ্রামে সুপারশপ, আনোয়ারায় পাড়া লকডাউন

প্রকাশ: ৬ এপ্রিল, ২০২০ ২:৪৭ : অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম মহানগরীর একটি অভিজাত সুপারশপ লকডাউনের (বন্ধ) পাশাপাশি মালিক ও তার পরিবারসহ সুপারশপে কাজ করা সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়েছে প্রশাসন। অন্যদিকে,  করোনা উপসর্গ নিয়ে এক যুবকের মৃত্যুর পর আনোয়ারা উপজেলার বারখাইন ইউনিয়নের শিলাইগড়া পড়া লকডাউন করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে আনোয়ারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ জোবায়ের আহমেদ গনমাধ্যকে জানান, পূর্ব সতর্কতার অংশ হিসেবে শিলাইগড়া পাড়া আমরা লকডাউন করে দিয়েছে। প্রায় ১০০টি পরিবারের বসবাস ওই পাড়ায়। তাদের সবার নিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনা করে সোমবার (৬ এপ্রিল) ভোর থেকে শিলাইগড়া পড়ায় প্রবেশ কিংবা ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, রোববার রাতে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিলাইগড়া পাড়ার যুবক শরিফ উদ্দিন করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেন। তার নমুনা পরীক্ষার জন্য ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডিতে পাঠানো হয়েছে। সোমবার বিকেলে নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া যেতে পারে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

এদিকে,  রোববার সন্ধ্যায় প্রতিষ্ঠানটির এক কর্মচারীর শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন সীতাকুণ্ড উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন রায়।

সুপারশপটির ম্যানেজার সাংবাদিকদের বলেন, গত শনিবার সকাল থেকে খুলশী থানা পুলিশের নির্দেশে তাদের প্রতিষ্ঠানটি লকডাউন করা হয়েছে।

প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রামের করোনাভাইরাস আক্রান্ত প্রথম রোগীর ২৫ বছর বয়সী ছেলে সুপারশপটিতে ‘সেলস এক্সিকিউটিভ’ হিসেবে চাকরি করেন। সে কারণে নিরাপত্তামূলকভাবে শনিবার সুপারশপটি বন্ধ করে দেয়া হয়। পরে রোববার সন্ধ্যায় ওই যুবকের শরীরে করোনা সংক্রমণ হওয়ার রিপোর্ট পাওয়ার কথা জানান চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন শেখ ফজলে রাব্বি।

সুপারশপটির ম্যানেজার বলেন, ‘আক্রান্ত কর্মী গত ২৫ মার্চ থেকে ছুটিতে আছেন। তারপরেও পুলিশের নির্দেশনা মেনে আমরা শপটি বন্ধ করে দিয়েছি।’

Print Friendly and PDF

———