চট্টগ্রাম, সোমবার, ১ জুন ২০২০ , ১৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

‘গাড়ি নিয়ে বের না হলে খাবার জোটে না আমাদের’

আলাউদ্দিন, লোহাগাড়া প্রতিনিধি প্রকাশ: ২৮ মার্চ, ২০২০ ৮:০৩ : অপরাহ্ণ

লোহাগাড়ায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের নেয়া পদক্ষেপের ফলে ফাঁকা হয়ে গেছে রাস্তাঘাট। বন্ধ হয়ে গেছে দোকানপাঠ, হোটেল-রেঁস্তোরা ও অফিস আদালত। ওষুধের দোকান আর কাঁচাবাজার সীমিতভাবে খোলা রয়েছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের হচ্ছেন না মানুষ।

গণপরিবহন বন্ধ থাকায় ফাঁকা হয়ে পড়েছে রাস্তাঘাট। শহর ও গ্রামের রাস্তায় ব্যাটরী রিকশা, অটোরিকশা দেখা গেলেও যাত্রী পাচ্ছেন না চালকরা। অন্যদিকে কাজ না থাকায় বিপাকে পড়েছেন শ্রমজীবী মানুষজনও।

২৮ মার্চ ( শনিবার) বিকালে ৪ টার দিকে কথা হয় লোহাগাড়া বটতলী মোটর ষ্টেশনের রিক্সা চালক আলী আহমদ সাথে। বাড়ির মোট সদস্য ৬ জন; তার মধ্যে ১ মেয়ে ২ ছেলে স্ত্রীসহ আলাদা থাকেন তিনি।

তিনি বলেন, একদিন রিকশা নিয়ে বের না হলে খাবার জোটে না। তাই রিকশা নিয়ে সকাল থেকে বের হয়েছি। কিন্তু রাস্তায় লোকজন নাই, তাই যাত্রীও নাই। আয় রোজগার করতে না পারলে পরিবারের খাবার জুটবে কেমনে বুঝতেছি না। এ অবস্থা চলতে থাকলে বউ-বাচ্চা নিয়ে অনাহারে থাকতে হবে।

বটতলী মোটর ষ্টেশনে ভ্যানের উপর বসে বসে অলস সময় কাটাচ্ছিলেন ভ্যান চালক শাহ আলম । বাড়ি লোহাগাড়া সদরে কাজীর পুকুর পড়ে। দীর্ঘ এক যুগ ধরে এলাকায় ভ্যান গাড়ি চালান তিনি। কথায় হয় তার সাথে।

আগের দিনে যেখানে ছয়-সাতশ টাকা রোজগার করতেন এখন । এখন এক টাকাও ইনকাম হয়না বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে সব দোকান পাট বন্ধ। রাস্তায় ভাড়াও নেই। সংসার কিভাবে চালাব ভাবতে পারছি না । কোনো জমানো টাকাও নেই যে তা দিয়ে চলব । আল্লাহর উপর সব ছেড়ে দিয়েছি।

করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে বন্ধ রয়েছে লোহাগাড়ার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। শুধু কাঁচাবাজার, ওষুধ ও নিত্যপণ্যের দোকান খোলা রাখার অনুমতি দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

এদিকে করোনার প্রভাবে শুধু শ্রমজীবি মানুষ নয় রিকশাচালক, টমটম চালক এমনকি ভ্রাম্যমাণ ক্ষুদ্র ব্যবসায়িরাও অর্থ সঙ্কটে পড়েছেন।

এ ব্যাপরে জানতে চাইলে লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ( ইউএনও) তৌছিফ আহমেদ সিটিজি টাইমসকে বলেন, শ্রমজীবি ও কেটে খেটে খাওয়া মানুষদের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে শুকনো খাবার এবং চাল-ডালের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। আজ (শনিবার) রাত থেকে বিতরণ করা হবে।

Print Friendly and PDF

———