চট্টগ্রাম, রোববার, ২৯ মার্চ ২০২০ , ১৫ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

পার্বত্য চট্টগ্রামের আরো ২টি কেন্দ্রে এমন ঘটনা ঘটেছে

রামগড়ে ২০১৮ সালের প্রশ্নে এসএসসির বাংলা পরীক্ষা!

রামগড় প্রতিনিধি প্রকাশ: ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ৯:২৫ : অপরাহ্ণ

আজ শনিবার থেকে সারা দেশে শুরু হয়েছে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। এবারের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ২১ লাখ ৩৫ হাজার ৩৩৩ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছে বলে শিক্ষা মন্ত্রনালয় সূত্রে জানা গেছে। এরমধ্যে ১০ লাখ ৭০ হাজার ৪৪১ জন ছাত্র এবং ১০ লাখ ৬৪ হাজার ৮৯২ জন ছাত্রী। দেশের তিন হাজার ৪৯৭টি কেন্দ্রে ২৮ হাজার ৬৮২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। বিদেশের আটটি কেন্দ্রেও পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে এবার।

আজ এসএসসিতে বাংলা (আবশ্যিক) প্রথম পত্রের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পরীক্ষা সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত চলেছে সারাদেশেই। আর মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে দাখিল পরীক্ষায় আজ কুরআন মজিদ ও তাজবিদ বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এদিকে খাগড়াছড়ির রামগড়ে ২০২০ সালের পরিবর্তে ২০১৮ সালের প্রশ্নে এসএসসির বাংলা পরীক্ষা নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। পরীক্ষার পর এ খবর ছড়িয়ে পড়লে পরীক্ষার্থীদের মাঝে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া প্রথম দিনের বাংলা পরীক্ষায় কেন্দ্র কর্তৃপক্ষের অবহেলা আর দায়িত্বহীনতায় অভিভাবকরা নানা প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

সোমবার উপজেলার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। সংশ্লিষ্টদের এমন ভুলে সব প্রশ্নের উত্তর লিখতে পারেনি বলে অভিযোগ শিক্ষার্থীদের।

কেন্দ্র সচিব ও রামগড় সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ আব্দুল কাদের জানান, ভুলে ২০২০ সালের প্রশ্নের সঙ্গে ২০১৮ সালের প্রশ্ন চলে এসেছে। ঘটনার পরপরই তিনি এ বিষয়ে বোর্ড কর্মকর্তাদের বিষয়টি অবগত করেছেন। তবে এতে পরিক্ষার্থীদের কোন সমস্যা হবে না। খাতা কাটার সময় বিশেষ দৃষ্টিকোন থেকে তাদের খাতাগুলো দেখা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মুহাম্মদ সরওয়ার উদ্দিন জানান, এ বিষয়ে শিক্ষার্থী ও অভিবাবকদের চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই। ঘটনা শোনার পর এ বিষয়ে তিনি শিক্ষা বোর্ড নিয়ন্ত্রকদের সাথে যোগাযোগ করেছেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের আরো ২টি কেন্দ্রে এমন ঘটনা ঘটেছে। পরীক্ষার্থীদের খাতা দেখার সময় সহানুভূতির সাথে বিষয়টি দেখা হবে। কেন্দ্র সচিবের ভুলের কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, গাফিলতির দায়ে কেন্দ্র সচিবসহ অন্যান্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে একি ঘটনায় ইতিমধ্যে লামা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিব নুরুল ইসলাম ফরিদকে প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

Print Friendly and PDF

———