চট্টগ্রাম, বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ , ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

রাউজানে প্রচন্ড শীতে কাবু মানুষ, খঁড়কুটা জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা!

এম বেলাল উদ্দিন, রাউজান থেকে প্রকাশ: ২৯ জানুয়ারি, ২০২০ ১:২৪ : অপরাহ্ণ

গত ১৫ দিন থেকে হাড় কাঁপানো শীতে কাবু হয়ে পড়েছে হাজারো মানুষ। এতে করে শীতার্থ গরিব অসহায় মানুষ কাহিল অবস্থায় পড়েছেন। তারা শীতের কারনে খড়খুটা জ্বালিয়ে তাপ নেওয়ার চেষ্টা করছেন।

আজ বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সূর্যের দেখা মেলেনি। মেঘাচ্ছন্ন রয়েছে আকাশ। সকাল থেকে বেলা বাড়লেও শরীরের গরম কাপড় চোপড় খুলতে পারছেনা কেউ। বিভিন্ন বাজার ও ফুতপাতের দোকান গুলোতে গরম কাপড় বিক্রির ধুম পড়েছে।

সরেজমিন সকাল ১১টায় দেখা গেছে রাউজান উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের জানিপাথর সিদ্দীক সারাং মসজিদ এলাকার দোকানের সামনে কিছু বৃদ্ধ রাস্তার দ্বারে খড়খুটা জ্বালিয়ে আগুনের তাপ নিতে। তাঁরা জানান শীতে রাত দিন সমান ভাবে লাগছে। হাত পা বরাপ (ঠান্ডা) হয়ে যাচ্ছে। শীতের কাপড় থাকা সত্বেও দিনেই বুক কাঁপছে।

প্রচন্ড শীতে মানুষের জান রক্ষা করা দায় পড়েছে। মেঘলা আকাশে সূর্যের দেখা মেলেনি দুপুর পর্যন্ত। দিন মজুর ও বিভিন্ন খেটে খাওয়া মানুষের দুর্ভোগ বেড়েছে। বিভিন্ন বাজারের অস্থায়ি শীতের কাপরের দোকান থেকে পছন্দের কম দামী কাপড় কিনে শীত নিবারণের চেষ্টা চালাচ্ছেন গরিব ও দিনমজুররা। রাতের শীতের পাশাপাশি দিনের শীতেও মানুষ কাহিল।

হাঁর কাপানো শীতে ছোট বড় সকল পেশার মানুষের জীবন যাত্রায় নেমে এসেছে শারিরীক সমস্যা। ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত শিশু ও বয়স্করা। তীব্র শীতে পশু ও বনের পাখি গুলোর ত্রাহি অবস্থা। দিবা-রাত্রি গরম কাপড় চোপড় শরীর থেকে নামানো যাচ্ছেনা।

বিভিন্ন পর্যায়ের শীতের কাপড় পরিধান করে বিশেষ করে নাকে নাসা, হাত পায়ে মওজা পরে সকালের স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, কেজি, নুরানীর ছাত্র-ছাত্রীরা শিক্ষা প্রতিষ্টানে যেতে হচ্ছে। দিন মজুররা তীব্র শীত উপেক্ষা করে পেটের দায়ে দিনপাল্লা কাজ করে যাচ্ছেন।

Print Friendly and PDF

———