চট্টগ্রাম, বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ , ৬ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সিটি নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন হলে আপত্তি নেই: কাদের

প্রকাশ: ১৭ জানুয়ারি, ২০২০ ৪:৫৭ : অপরাহ্ণ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নির্বাচনের যে কোনো বিষয়ে দায়দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের। এখানে সরকারের কিছুই করার নেই। নির্বাচনের তারিখ তারাই নির্ধারণ করেছে, এটা তাদেরই এখতিয়ার। এখন নির্বাচন কমিশন ভোটের তারিখ পরিবর্তন করতে চাইলে সরকার বা আওয়ামী লীগের কোনো আপত্তি নেই।

আজ (শুক্রবার) সকালে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সম্পাদকমণ্ডলীর মুলতবি বৈঠক শেষে, সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব সরস্বতী পূজা। এ ধর্মীয় উৎসবের প্রতি সম্মান দেখিয়ে তাদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে একটা সমাধান করতে পারে নির্বাচন কমিশন।

পূজার দিন নির্বাচনের তারিখ দিয়ে সরকার অন্যায় করেছে, ডক্টর কামালের এমন মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ভোটের তারিখটি সরকার নির্ধারণ করেনি। এটি নির্বাচন কমিশনের সাংবিধানিক এখতিয়ার। এ ব্যাপারে সরকারকে দোষারোপ করার কোনো যৌক্তিকতা নেই।

ইভিএম নিয়ে বিএনপির অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে তিনি বলেন, বগুড়ার দুপচাচিয়ায় ইভিএম দিয়ে ভোট গ্রহণ হয়েছে। সেখানে বিএনপির প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। মির্জা ফখরুল সাহেব কি কখনও বলেছেন এই ফলাফল প্রত্যাখ্যান করছি। তারা কি প্রত্যাখ্যান করেছে।

বিরোধীদের মত প্রকাশের স্বাধীনতা নেই, হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এমন বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করেন ওবায়দুল কাদের। পাল্টা প্রশ্ন করেন, বিরোধীরা প্রতিদিন সরকারের বিরুদ্ধে গালিগালাজ করছে। প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে যেসব ভাষা ব্যবহার করছে, অশ্রাব্য ভাষায় প্রধানমন্ত্রীকে গালিগালাজ করছে। সরকার কারো কণ্ঠ রোধ করলে তারা কি এভাবে গালিগালাজ করতে পারতো।

এদিকে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, একইদিনে ঢাকা সিটি নির্বাচনে ভোটগ্রহণ এবং সরস্বতী পূজার বিষয়টি নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত। এখানে সরকারের কিছুই করার নেই। তবে এতে আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হবে, এমন কোনো কারণ নেই। আমরা মনে করি সবাই সবার গুরুত্বটা বোঝেন। নির্বাচন কমিশন যা বলবে, আমাদের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সেইদিকে নজর রেখেই কাজ করবে।

আজ (শুক্রবার) দুপুরে রাজধানীর মধুবাগে শের-ই-বাংলা স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৫০বছরপূর্তি উদযাপন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

Print Friendly and PDF

———