চট্টগ্রাম, বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই ২০২০ , ২৫ আষাঢ়, ১৪২৭

সাতকানিয়ায় মগের মুল্লুকের মগদের ‘ইংরা হংপ্রা’ অর্থাৎ প্রাচীন বসতি

মসরুর জুনাইদ প্রকাশ: ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১০:৩৮ : অপরাহ্ণ

১৯০০ খ্রিস্টাব্দে পার্বত্য চট্টগ্রামে সার্কেলসমূহ গঠিত হলে কং হ্লা প্রু পরিবারের খেতাবের স্মারক হিসেবেই গঠিত হয় বোমাং সার্কেল।

বর্তমানে বোমাং রাজার বাড়ি বান্দরবান শহরে। বলা চলে বোমাং রাজার বাড়িকে ঘিরেই গড়ে উঠেছে অরণ্যময় শহর বান্দরবান। তবে বোমাং রাজপরিবার বান্দরবান আসার আগে নানাস্থানে বিভিন্ন সময় অবস্থান করেছে।

চট্টগ্রাম জেলার সাতকানিয়ার অন্তর্গত বাজালিয়া গ্রামের শঙ্খ নদীর খায়েরুজ্জামান চৌধুরী চরে কিছুকাল অবস্থান করে বোমাং রাজপরিবার। এই এলাকাটি এখনও বান্দরবানের মারমাদের কাছে ‘ইংরা হংপ্রা’ অর্থাৎ ‘প্রাচীন বসতি এলাকা’ হিসেবে পরিচিত।

কোনো কোনো ইতিহাসবিদের মতে, কং হ্লা প্রু ১৭৭৪ খ্রিস্টাব্দে আরাকান থেকে চট্টগ্রামে ফিরে আসার পর এই রাজপরিবার তাদের অনুগত তেলেইং জনগোষ্ঠীকে নিয়ে রামু, ঈদগাহ, মাতামুহুরী নদীর তীর, এমনকি মহেশখালীতেও বসবাস করেছেন।

তেলেইং থেকে মারমা

প্রাচীনকাল থেকেই এই তেলেইংরা এদেশে মগ নামে পরিচিত ছিলেন। তেলেইং থেকে মগ পরিচিতি কীভাবে এলো তার সুস্পষ্ট প্রমাণ পাওয়া না-গেলেও অনেকেই ধারণা করেন, মগ নামটি ‘মগধ’ শব্দজাত। অর্থাৎ মগধের ধর্মের তথা বৌদ্ধ ধর্মের অনুসারীরাই মগ নামে পরিচিত হয়েছেন বৃহত্তর চট্টগ্রামে এসে।

তাছাড়া সে-সময় আরাকানিরাও নিজেদের মগধাতদের বংশধর বলে পরিচয় দিতেন। তাই চট্টগ্রামের স্থানীয়দের কাছে আরাকান থেকে আসা বৌদ্ধ ধর্মের অনুসারী তেলেইংরা মগ নামেই পরিচিত হয়ে ওঠেন।

কিন্তু ইতিহাসের নানা ঘটনার পরম্পরায় চট্টগ্রামের স্থানীয়দের কাছে এক সময় ‘মগ’ শব্দটি লুটতরাজ আর দস্যুতার প্রতীক হয়ে ওঠে। মানুষ মগ শব্দটিকে ঘৃণ্য একটি অভিধা হিসেবেই গ্রহণ করে। ‘মগের মুল্লুক’ কথাটি তারই বহিঃপ্রকাশ।

একারণেই তারা নিজেদের মগ পরিচয় নিয়ে অস্বস্তিতে পড়েন। ফলে পাকিস্তান আমল থেকে তারা নিজেদের আরাকানের মারমা জনগোষ্ঠীর অংশ বলে দাবি করেন। যদিও প্রাচীন আরাকানে মারমা নামের কোনো জনগোষ্ঠীর বসবাসের প্রমাণ খুঁজে পান নি ইতিহাসবিদরা।

সিটিজি টাইমস/মসরুর জুনাইদ

পুনশ্চ: বাণিজ্যিক রাজধানী হিসেবে স্বীকৃত হাজার বছরের ইতিহাস-ঐতিহ্যের অধিকারী চট্টগ্রামের ইতিহাস-ঐতিহ্যে পাঠাকের সামনে তুলে ধরতে চট্টগ্রামের প্রথম ও শীর্ষস্থানীয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল সিটিজি টাইমসে শুরু হল নতুন ধারাবাহিক আয়োজন ” হাজার বছরের চট্টগ্রাম”। আপনি ও লিখতে পারেন চট্টগ্রামের ইতিহাস-ঐতিহ্যে নিয়ে। ছবি সহ লিখা পাঠাবেন আমাদের মেইলে।

আরো…

Print Friendly and PDF

———