চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯ , ৩০শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

‘বুলবুল’ মোকাবেলায় সিপিপি’র ১২শ স্বেচ্ছাসেবক মাঠে

মিরসরাইয়ে প্রস্তুত ১২২ আশ্রয়কেন্দ্র, উপকূলের লোকজনকে সরিয়ে নেয়ার চেষ্টা

এম মাঈন উদ্দিন, মিরসরাই প্রতিনিধি প্রকাশ: 9 November, 2019 6:46 : PM

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবেলায় চট্টগ্রামের মিরসরাই উপকুলীয় এলাকায় ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে উপজেলা প্রশাসন । উপকূলের লোকজনকে নিরাপদে সরিয়ে নিতে ১২২টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। শনিবার বিকাল থেকে উপকূলে বসবাসরত মানুষজনকে আ¤্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেওয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি উপজেলার উপকূলীয় ৬টি ইউনিয়নে স্থানীয় ঘুর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি) তাদের ১২শ স্বেচ্ছাসেবক মাঠে নামিয়েছেন।

এদিকে গত শুক্রবার উপজেলা প্রশাসন ঘুর্ণিঝড় মোকাবেলায় প্রস্তুতি সভা করেছেন। সেখানে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বনে উপজেলার উপকূলীয় এলাকায় ব্যাপক প্রস্তুতির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ওইদিন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপজেলায় মোট ১২২টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা এবং সিপিপি কর্মীদের মাঠে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেয়া হয়।

মিরসরাই উপজেলা প্রশাসন জানায়, প্রস্তুতির অংশ হিসেবে উপজেলার ৭৬ টি সাইক্লোন শেল্টার, ৪২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও একটি মাদ্রাসা আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে প্রস্তুত করা হয়েছে। পর্যাপ্ত শুকনো খাবারের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। জরুরী প্রয়োজনে ১৬টি মেডিকেল টিম ও ফায়ার সার্ভিসের ৪টি টিম সার্বক্ষনিক দায়িত্ব পালন করবে। এছাড়াও মিরসরাই ও জোরারগঞ্জ থানার পুলিশ সদস্যরা সার্বিক আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত থাকবে।

মিরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন বলেন, শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৫টা পর্যন্ত উপকূলের প্রায় ১৫শ মানুষকে আ¤্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। মিরসরাই বিশেষ অর্থনৈতিক অ লে কর্মরত প্রায় সকলকেই নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। বাকি মানুষজনকে সরিয়ে নিতে পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবকরা চেষ্টা করছে। আমরাও তদারকি করছি।

মিরসরাই উপজেলা ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি (সিপিপি) কমিটির টিম লিডার সাইফুল্লাহ দিদার জানান, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবেলায় ১১টি ইউনিয়নে ৮০জন টিম লিডারের নেতৃত্বে সিপিপি’র ১২০০ স্বেচ্ছাসেবক নিয়োজিত আছে। এছাড়া শনিবার উপকুলের প্রতিটি এলাকায় মাইকিং করা হয়েছে এবং উপকূলে বসবাসরত মানুষজনকে আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়ার চেষ্টা চলছে।

 

Print Friendly and PDF

———