চট্টগ্রাম, শনিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৯ , ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মোগল স্থাপত্যের অপূর্ব নিদর্শন লোহাগাড়ার মোহাম্মদ খান ছিদ্দিকী (রহ.) নায়েবে উজির জামে মসজিদ

প্রকাশ: 1 November, 2019 10:31 : AM

আলাউদ্দিন, লোহাগাড়া প্রতিনিধি:

মোগল স্থাপত্যের এক অপূর্ব নিদর্শন হিসেবে মোহাম্মদ খান ছিদ্দিকী (রহ.) নায়েবে উজির জামে মসজিদটি চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়েরর মল্লিক ছোবাহান চৌধুরী পাড়ায় যুগের সাক্ষী হয়ে আছে।

বন্দরনগরী খ্যাত চট্টগ্রামের আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে বহু ঐতিহাসিক নিদর্শন। যার সিংহভাগই মুসলিম স্থাপত্যের নিদর্শন।

তেমনি একটি মুসলিম স্থাপত্যের নিদর্শন হলো, লোহাগাড়ার মোহাম্মদ খান ছিদ্দিকী (রহ.) নায়েবে উজির জামে মসজিদটি।

মসজিদের গায়ের শিলালিপি অনুসারে জানা যায়, ১৬৬৬ খৃস্টাব্দে মসজিদটি নির্মিত হয়। মসজিদটি এলাকায় হোট্ট মসজিদ বা কেরানী মসজিদ হিসাবে পরিচিত।

মোঘল আমলে নির্মিত আয়তাকার আকৃতির এ মসজিদের ৩টি বড় গম্বুজ রয়েছে, যা স্থাপত্য শৈলীর অপূর্ব নিদর্শন। মসজিদের উত্তর পাশে দীঘি, পূর্ব পাশে পুকুর রয়েছে। মসজিদের নামে ৩৬০ দ্রোন জমি বরাদ্দ ছিল।মুঘল আমলে নির্মিত আয়তাকার আকৃতির এ মসজিদের ৩টি বড় গম্বুজ রয়েছে,

এই ঐতিহাসিক মসজিদে এক সঙ্গে প্রায় ৭শ’ মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারেন। মোহাম্মদ খান সম্রাট শাহজাহানের নায়েবে উজির ছিলেন। তিনি তাঁকে মহাস্থানগড় গৌড় রাজ্যের অধিপতি নিযুক্ত করেন।

সম্রাট আওরঙ্গজেব মামা শায়েস্তা খানকে বাংলার সুবেদার নিযুক্ত করায় মোহাম্মদ খান অভিমান করে মহাস্থানগড়ের অধিপতি ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম প্রচারে মনোনিবেশ করেন। মোহাম্মদ খানের পরবর্তী বংশধররা এখনও এই এলাকায় আছেন।

মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী সিটিজি টাইমসকে জানান, মসজিদটি মুঘল আমলের মুসলিম স্থাপত্যের প্রাচীন নিদর্শন। মসজিদটিকে ঘিরে রয়েছে এলাকার ইতিহাস ও ঐতিহ্য। মসজিদটির স্থাপত্যশৈলী ঠিক রেখে আগামীতে একটি অজুখানা এবং একটি বড় মিনার করার পরিকল্পনা রয়েছে।

চট্টগ্রামকে যেমন ওলি-দরবেশের পুণ্যভূমি বলা হয় তেমনি ইসলামী শিক্ষার প্রাণকেন্দ্র মনে করা হয় চট্টগ্রাম জেলার লোহাগাড়াকে। মসজিদটি মুঘল আমলের মুসলিম স্থাপত্যের প্রাচীন নিদর্শন।
মসজিদটিকে ঘিরে রয়েছে এলাকার ইতিহাস ও ঐতিহ্য। কিন্তু ধীরে ধীরে ক্ষয়ে যাচ্ছে এ ঐতিহ্য।

বস্তুত প্রাচীন এ নিদর্শনটি কালের সাক্ষী হয়ে চট্টগ্রাম অঞ্চলের ইতিহাস ও ঐতিহ্য লালন করে আসছে। এলাকাবাসীর দাবী, মুঘল আমলে নির্মিত এ মসজিদের অপূর্ব স্থাপত্য শৈলী সংরক্ষণে রাখার ব্যবস্থা করা হোক।

তথ্যসূত্র : লোহাগাড়ার ইতিহাস ও ঐতিহ্য বই, লেখকঃ মোহাম্মদ ইলিয়াছ।

Print Friendly and PDF

———