চট্টগ্রাম, রোববার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ , ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামের পাইকারি বাজারে পড়তে শুরু করেছে পেঁয়াজের দর

প্রকাশ: ১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ৯:৫৫ : অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামের পাইকারি বাজারে পড়তে শুরু করেছে পেঁয়াজের দর। বিদেশ থেকে কার্গো বিমানে পেঁয়াজ আসার খবরের পাশাপাশি বাজারে ক্রেতা না থাকায় একদিনের ব্যবধানে প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম কমেছে ১০০ টাকা পর্যন্ত।

এ ধারা অব্যাহত থাকলে কয়েকদিনের মধ্যেই পেঁয়াজের দাম সহনীয় পর্যায়ে নেমে আসবে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

দেশের সবচে বড় পাইকারি ভোগ্যপণ্যের বাজার চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম ১০০ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৩০ টাকা দরে। মিশর এবং তুরস্ক থেকে চট্টগ্রাম বন্দরের মাধ্যমে আমদানি করা পেঁয়াজ নিয়ে ট্রাক এবং কাভার্ড ভ্যান খাতুনগঞ্জে ঢোকার সাথে সাথে দাম কমতে থাকে। অথচ শনিবারও পাইকারি পর্যায়ে মিয়ানমার থেকে আনা প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ২০০ থেকে ২২০ টাকা দরে। আর চীনের পেঁয়াজের দাম ছিলো ২৩০ টাকা।

একজন বলেন, প্রচুর পরিমাণে পেঁয়াজ আসতেছে, এবং আমাদের সরকার ও বিমান দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি করতেছে।

ব্যবসায়ীদের দাবি, লাগামহীনভাবে দাম বাড়ানোর পাইকারি বাজার বর্তমানে অনেকটা ক্রেতা শূন্য। সময় মতো পেঁয়াজ বিক্রি করতে না পারায় গুদামে গুদামে পচে যাচ্ছে বিপুল পরিমাণ পেঁয়াজ। যে কারণে কম দামে পেঁয়াজ বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন। সকালে ৫৫ কেজির প্রতি বস্তা পেঁয়াজ ১১ হাজার টাকা চাওয়া হলেও বিকালে তা ৭ হাজার দিয়েও ক্রেতা পাওয়া যায়নি।

একজন বলেন, পেঁয়াজের খুব করুণ অবস্থা। ক্রেতা শূন্য আড়তে মাল আমদানি হচ্ছে। কিন্তু কোন ক্রেতা নেই।

আরেকজন বলেন, বাজারে ক্রেতা শূন্য হওয়ার কারণ হচ্ছে, বাজারে দেশি পেঁয়াজ আসছে।

আর খাতুনগঞ্জে পেঁয়াজ-বাহী ট্রাক এবং কাভার্ড ভ্যান ঢোকায় দাম আরও পড়ে যাওয়ার শঙ্কায় ব্যবসায়ীরা গুদামের পেঁয়াজ ছেড়ে দিচ্ছেন।

খাতুনগঞ্জ হামিদ উল্লাহ মাকেট ব্যবসায়ী সমিতি সাধারণ সম্পাদক ইদ্রিস আলী বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কাগোর্তে করে যে পেঁয়াজ আমাদানির ঘোষণা দিয়েছেন, এটার প্রভাবেই বাজারে পেঁয়াজের দাম ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে।

সেপ্টেম্বর মাসের শুরুতেই বাংলাদেশে পেঁয়াজের বাজারে অস্থিরতা শুরু হয়। সরবরাহ সংকটের সুযোগে ব্যবসায়ীদের কারসাজিতে ২০ টাকা কেজির পেঁয়াজ গত আড়াই মাসে বিভিন্ন পর্যায়ে সর্বোচ্চ আড়াইশো টাকায় ঠেকে। সূত্র- সময় টিভি

Print Friendly and PDF

———