চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯ , ৩০শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ধরা খেলেন পঙ্কজও

প্রকাশ: 25 October, 2019 12:28 : AM

ক্যাসিনোকাণ্ডে আলোচিত মোল্লা মো. আবু কাওছারকে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতির পদ থেকে সরানোর পরদিন সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ নাথকেও সংগঠনের সব কার্যক্রম থেকে বিরত থাকতে বলেছেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা।

টানা দ্বিতীয় মেয়াদে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালনকারী পঙ্কজ এই পদে আছেন প্রায় ১৭ বছর ধরে। বর্তমানে বরিশাল-৪ আসনের সংসদ সদস্য তিনি।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সব কার্যক্রম থেকে বিরত থাকতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বৃহস্পতিবার তাকে জানিয়েছেন সংগঠনটির সাবেক সভাপতি আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম।

নাছিম বলেন, “স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ নাথকে সংগঠনের সকল কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন। আমাদের দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ভাই আমাকে বলেছেন পঙ্কজ নাথকে জানানের জন্য, আমি পঙ্কজকে বিষয়টি জানিয়ে দিয়েছি। বলেছি, সম্মেলন প্রস্তুতিসহ সংগঠনের সকল কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকার জন্য।”

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পংকজ বলেন, “বাহাউদ্দিন নাছিম ভাই কিছুক্ষণ আগে আমাকে ফোন করে বলেছেন, সম্মেলনের সকল কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার জন্য।”

ঢাকার বিভিন্ন ক্লাবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানে ক্যাসিনো চালানোর বিষয়টি ধরা পড়ার পর তাতে যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও কৃষক লীগ নেতাদের সম্পৃক্ততার তথ্য বেরিয়ে আসে গত মাসের মাঝামাঝি সময়ে। এর সঙ্গে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি ও দখলদারিত্বের অভিযোগ ওঠে আসে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনগুলোর অনেক নেতার বিরুদ্ধে। গত ১৮ সেপ্টেম্বর মতিঝিলের ওয়ান্ডারার্স ক্লাবে র‌্যাবের অভিযানে মদ, নগদ টাকা এবং ক্যাসিনোর সরঞ্জাম পাওয়া যায়। এই ক্লাবের সভাপতি মোল্লা কাওসারকে বুধবার স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতির দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। তার দুই দিন আগে যুবলীগ চেয়ারম্যানের দায়িত্ব থেকে ওমর ফারুক চৌধুরীও সরিয়ে দেওয়া হয়।

পঙ্কজ নাথের বিরুদ্ধে কেন এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, সে বিষয়ে আওয়ামী লীগের কয়েকজন জ্যেষ্ঠ নেতাকে প্রশ্ন করা হলে জবাব দেননি কেউ। তবে নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ জানিয়ে যুবলীগের একজন নেতা বলেন, “উনার বিরুদ্ধেও দুর্নীতির অভিযোগ এসেছে।”

২০০২ সালে স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রথম কাউন্সিলে সভাপতি বাহাউদ্দিন নাছিমের সঙ্গে সাধারণ সম্পাদক হন পঙ্কজ নাথ। এরপর ২০১২ সালে দ্বিতীয় কাউন্সিলে সভাপতি পদে পরিবর্তন হয়ে মোল্লা আবু কাওছার দায়িত্বে এলেও সাধারণ সম্পাদক হন পঙ্কজ দেবনাথই। মেয়াদ পেরিয়ে গেলেও ওই কমিটিই এখনও কাজ চালিয়ে যাচ্ছিল।

এরমধ্যে ২০১৪ সালের দশম জাতীয় নির্বাচনে বরিশাল-৪ আসন থেকে প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন পংকজ। একাদশ সংসদ নির্বাচনেও ওই আসন থেকেই নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

আগামী ১৬ নভেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের তৃতীয় সম্মেলন হবে।

Print Friendly and PDF

———