চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯ , ৬ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সিটিজি টাইমসে সংবাদ প্রকাশের পর ডিজিটাল ভূমি জরিপ গণশুনানিতে উপজেলা চেয়ারম্যান

ত্রুটিপূর্ণ জরিপ বাদ দিয়ে নতুন জরিপ করতে হবে

এম মাঈন উদ্দিন, মিরসরাই প্রতিনিধি প্রকাশ: ৪ জুলাই, ২০১৯ ১১:৫৭ : অপরাহ্ণ

মিরসরাইয়ের ডিজিটাল জরিপ আর এস টু এর অনিয়ম ঘুষ নিয়ে ক্ষুদ্ধ জনতার গণশুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

বুধবার (৩ জুলাই) স্থানীয় করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদে ভূমি জরিপ পর্যবেক্ষণ সংক্রান্ত কমিটির সভায় এ শুনানির আয়োজন করা হয়। এতে বক্তব্য রাখেন মিরসরাই উপজেলা চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিন।

জরিপে অনিয়ম নিয়ে গত ২৮ জুন জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিগোচর হয়।

তিনি বলেন, ‘ডিজিটাল সার্ভেতে অনিয়ম হওয়াটা খুবই দুঃখজনক। সরকার জনগণের কল্যাণার্থে এই প্রকল্প শুরু করলেও এখন এটি তাদের গলার কাটা হয়ে গেছে।

পূর্বে করা ক্রুটিপূর্ণ জরিপ বাদ দিয়ে নতুন করে এখানে জরিপ কার্যক্রম শুরু করতে হবে। না হয় ভূমি মালিকদের অনেক ক্ষতি হয়ে যাবে।’ উপজেলা চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন একই সাথে অসাধু সার্ভেয়ারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

ওইদিন ক্ষতিগ্রস্থ ভূমি মালিকরা অভিযোগ করেন, চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকে সেটেলম্যান্ট অফিস করেরহাট ইউনিয়নের কাটাগাং, ভালুকিয়া, জয়পুর, পূর্বজোয়ার ও পশ্চিম জোয়ার মৌজা এলাকায় ডিজিটাল সার্ভের কাজ শুরু করে।

এসময় সার্ভে টিমের লোকজন স্থানীয় জমি মালিকদের সঙ্গে কোনরকম সমন্বয় না করে একতরফাভাবে নকশা প্রণনয়ন করছেন। এছাড়া জমির নকশা ঠিকঠাকভাবে করে দিবে বলে বেশ কিছু জমি মালিক থেকে টাকা দাবি করেছে।

নিরুপায় হয়ে অনেকেই তাদের টাকাও দিয়েছেন। এখানে ডিজিটাল জরিপ করার সময় জমি মালিকদের সাথে যোগাযোগ না করার দরুন জরিপ ত্রুটিযুক্ত হচ্ছে।

গণশুনানিতে ক্ষতিগ্রস্থ জমি মালিক সাইফুল ইসলাম জানান, বরৈয়া মৌজায় আমার ৬৯ শতক জায়গা ছিলো। কিন্তু ৫ শতক বাদ দিয়ে ৬৪ শতক জমি রেকর্ড করা হয়। এটি ঠিক করার জন্য সার্ভেয়াররা ৭০ হাজার টাকা দাবী করেছে।

উপজেলা ভূমি জরিপ পর্যবেক্ষণ সংক্রান্ত কমিটির সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল আমিনের সঞ্চালনায় করেরহাট ইউপি চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়নের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ইসমত আরা, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) রাশেদুল ইসলাম, সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার মোঃ আবুল কাসেম-২, করেরহাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ সেলিম, মুক্তিযোদ্ধা মোঃ তোবারক হোসেন, মোঃ সোয়াইব মেম্বার প্রমুখ।

শুনানি শেষে মিরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল আমিন বলেন, ভুক্তভোগী ও এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমরা করেরহাট ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে সরেজমিনে বক্তব্য শুনেছি। ভূমি মালিকদের অভিযোগের আলোকে আমি জরিপ অধিদপ্তরের মহা পরিচালক বরাবরে লিখিত প্রতিবেদন পাঠাবো।

প্রসঙ্গত সারাদেশের মত চট্টগ্রামের তিনটি উপজেলায় ডিজিটাল ভূমি জরিপ কাজ শুরু করেছে সরকার। যার মধ্যে মিরসরাইয়ে করেরহাট ইউনিয়নে আর.এস টু নামের এ জরিপ কাজ চলছে।

তবে এখানে জরিপকাজে নিয়োজিত সরকারি সার্ভেয়ার ও কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে জমির মালিকানা, শ্রেণি ও সীমানা পরিবর্তনের কথা বলে ঘুষ লেনদেনসহ নানা অভিযোগ উঠেছে।

 

Print Friendly and PDF

———