চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯ , ৬ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে কিশোরীকে ধর্ষণের পর ফেলে রাখা হয় রাস্তায়

সিটিজি টাইমস ডেস্ক প্রকাশ: ৪ জুলাই, ২০১৯ ১০:৪৪ : পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রামে কিশোরীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ওই কিশোরী চট্টগ্রামের কর্ণফুলী থানা এলাকায় কোরিয়ান ইপিজেডে কর্ণফুলী সু ফ্যাক্টরিতে কাজ করেন। তার বাড়ি চন্দনাইশ উপজেলায়।

ছুটির পর কারখানা থেকে বের হওয়া এক কিশোরীকে মুমুর্ষু অবস্থায় রাস্তায় পাওয়া গেছে। বুধবার (০৩ জুলাই) রাত ১২ টার দিকে তাকে পুলিশ ও পরিবারের সদস্যরা মিলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়ে গেছে।

পুলিশ জানিয়েছে- ওই কিশোরীকে ধর্ষণের পর মুমুর্ষু অবস্থায় রাস্তায় ফেলে যাওয়ার অভিযোগ করেছে তার পরিবার।

চমেক হাসপাতালের ফাঁড়িতে দায়িত্বরত একজন পুলিশ সদস্য গণমাধ্যমকে বলেন, ‘মেয়েটির বয়স আনুমানিক ১৪-১৫ বছর। প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছে। অবস্থা খুবই খারাপ। পরিবারের সদস্যরা আমাদের জানিয়েছেন- তাকে চোখ বেঁধে অজ্ঞাতস্থানে নিয়ে গিয়ে ৪ জন মিলে ধর্ষণ করেছে।’

পুলিশ সুত্র জানায়, রাত ৮টায় কারখানা ছুটি শেষে প্রতিদিন স্থানীয় রুটের বাসে চড়ে মেয়েটি বাড়িতে যান। বুধবারও যথারীতি রাত ৮টায় মেয়েটি কারখানা থেকে বের হন।

তবে রাত সাড়ে ৮টার দিকে মেয়েটিকে আনোয়ারা থানার চৌমুহনীর অদূরে কালার মার দিঘী এলাকায় অন্ধকারের মধ্যে রাস্তার ওপর মুমুর্ষু অবস্থায় পান স্থানীয়রা।

তার কাছ থেকে মোবাইল নম্বর নিয়ে পরিবারের সদস্যদের জানানো হয়। ভাইসহ পরিবারের কয়েকজন সদস্য ঘটনাস্থলে যান। এরপর তাকে চমেক হাসপাতালে নেওয়া হয়।

আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দুলাল মাহমুদ বলেন, ‘যেহেতু তাকে আনোয়ারা থানা এলাকায় পাওয়া গেছে, মামলা আমাদের থানায় হবে। হাসপাতালে আমাদের টিম গেছে।’

Print Friendly and PDF

———