fbpx

চট্টগ্রাম, শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯ , ৫ই শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সুফিয়া কামালের জন্মদিন আজ : স্মরণ করছে গুগলও

তানজিদ শুভ্র প্রকাশ: ২০ জুন, ২০১৯ ১০:৪৪ : পূর্বাহ্ণ

আধুনিক বাংলাদেশের নারী প্রগতি আন্দোলনের পুরোধা, প্রথিতযশা কবি ও লেখিকা সুফিয়া কামাল ১৯১১ সালের ২০ জুন বরিশালের শায়েস্তাবাদে মামার বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম সৈয়দ আব্দুল বারী এবং মাতার নাম সৈয়দা সাবেরা খাতুন। কবি সুফিয়া কামালের জন্মের সময় বাঙালি মুসলিম নারীদের গৃহবন্দি জীবন কাটাতে হতো। স্কুল-কলেজে পড়ে শিক্ষিত হওয়ার কোনো সুযোগ তাদের ছিল না। সেই সঙ্গে পরিবারে বাংলা ভাষার প্রবেশও একরকম নিষিদ্ধ ছিল।

সুফিয়া কামাল যে পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন সেখানে নারীশিক্ষাকে প্রয়োজনীয় মনে করা হত না। তাঁর মাতৃকুল ছিল শায়েস্তাবাদের নবাব পরিবারের এবং সেই পরিবারের কথ্য ভাষা ছিল উর্দু। এই কারণে অন্দরমহলে মেয়েদের আরবি, ফারসি শিক্ষার ব্যবস্থা থাকলেও বাংলা শেখানোর কোন ব্যবস্থা ছিল না। কিন্তু তিনি এই প্রতিবন্ধকতাকে শক্তিতে রূপান্তরিত করে স্বশিক্ষায় শিক্ষিত হন।

১৯২৬ সালে তার প্রথম কবিতা ‘বাসন্তী’ তৎকালীন প্রভাবশালী সাময়িকী সওগাতে প্রকাশিত হয়। ত্রিশের দশকে কলকাতায় অবস্থানকালে বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল নক্ষত্র যেমন রবীন্দ্রনাথ, নজরুল, শরৎচন্দ্র প্রমুখের দেখা পান।

১৯৪৭ সালে দেশবিভাগের পর সুফিয়া কামাল পরিবারসহ ঢাকায় চলে আসেন। ভাষা আন্দোলনে তিনি নিজে সক্রিয়ভাবে অংশ নেন এবং এতে অংশ নেওয়ার জন্য নারীদের উদ্বুদ্ধ করেন। ১৯৫৬ সালে শিশুদের সংগঠন কচিকাঁচার মেলা প্রতিষ্ঠা করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম মহিলা হোস্টেলকে ‘রোকেয়া হল’ নামকরণের দাবী জানান।

১৯৩৭ সালে তার গল্পের সংকলন কেয়ার কাঁটা প্রকাশিত হয়। ১৯৩৮ সালে তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ সাঁঝের মায়ার মুখবন্ধ লেখেন কাজী নজরুল ইসলাম। বইটি বিদগ্ধজনের প্রশংসা কুড়ায় যাদের মাঝে ছিলেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। দেশবিভাগের পূর্বে তিনি নারীদের জন্য প্রকাশিত সাময়িকী বেগমের সম্পাদক ছিলেন।

১৯৯৯ সালের ২০ নভেম্বর ঢাকায় সুফিয়া কামাল মারা যান। তাঁকে পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত করা হয়। বাংলাদেশী নারীদের মধ্যে তিনিই প্রথম এই সম্মান লাভ করেন।

নারীর অধিকার ও জাগরণের অন্যতম পথিকৃৎ কবি সুফিয়া কামালকে স্মরণ করেছে সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট গুগল। কবির ১০৮তম জন্মদিন উপলক্ষে বিশেষ ডুডল বানিয়েছে টেক জায়ান্ট গুগল।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) দিবাগত রাত ১২টার পর থেকে গুগল বাংলাদেশ ডোমেইনের হোম পেজে কবি সুফিয়া কামালের এই ডুডল দেখা যায়। ডুডলে সুফিয়া কামাল ছাড়াও একদল নারীকে হাতে হাত মিলিয়ে সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।

বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন দিন, বিশেষ ঘটনা কিংবা বিশেষ কোনো মূহূর্ত ফুটিয়ে ফুটিয়ে তুলতে ডুডল প্রকাশ করে গুগল।

Print Friendly and PDF

———