চট্টগ্রাম, বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯ , ৫ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ফেসবুকে চমকপ্রদ বিজ্ঞাপনে আইফোন অর্ডারের পর মিলতো সাবান-আলু-পটল

সিটিজি টাইমস ডেস্ক প্রকাশ: ২৩ মে, ২০১৯ ৬:০৫ : অপরাহ্ণ

ফেসবুকে চমকপ্রদ বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে ক্রেতাদের আকৃষ্ট করত একটি অনলাইন প্রতারক চক্র। অনলাইনে চক্রটি আইফোনের দাম দিতো ১০ হাজার টাকা। বিজ্ঞাপন দেখে আগ্রহীরা তাদেরকে ফোন করতেন। কিভাবে এতো কম দামে মোবাইল জানতে চাইলে বলা হতো- এটা ভ্যাট, ট্রাক্স ছাড়া ভারত থেকে আমদানি করা, তাই কম দামে বিক্রি করা হচ্ছে।

চক্রটির চক্রান্তি বুঝে উঠতে না পেরে অনেকেই সঙ্গে সঙ্গে ফোনের অর্ডার করতেন এবং অর্ধেক টাকা বিকাশের মাধ্যমে পরিশোধ করতেন। বাকি অর্ধেক কাঙ্ক্ষিত মোবাইল হাতে পাওয়ার পর দিতে হতো। দুই থেকে তিন দিনের মধ্যে কুরিয়ারে মোবাইল পৌঁছে যেত ক্রেতার ঠিকানায়। আইফোনের প্যাকেট পেয়ে ক্রেতা খুশি মনে বাকি টাকা পরিশোধের পর প্যাকেট খুললে তাতে মিলতো পেঁয়াজ, আলু, পটল, ভিম সাবান বা অন্য কোনও পণ্য। পরে তাদের অনলাইনে যোগাযোগ করেও মিলত না প্রতিকার।

অনলাইনে পণ্য বিক্রির নামে প্রতিদিন শত শত মানুষের সঙ্গে এভাবেই প্রতারণা করে আসছিল এই চক্রটি। গতকাল বুধবার (২২ মে) সন্ধ্যা ও বৃহস্পতিবার (২৩ মে) সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর দারুস সালাম এলাকায় অভিযান চালিয়ে এ চক্রের ৭ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব)।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি চৌধুরী মঞ্জুরুল কবির।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- আটককৃতরা হলেন, সুজন মোল্লা (২৬), হাসিবুল হাসান ওরফে চঞ্চল (৩২), জারদিস হোসেন (২০), মেহেদী হাসান (২৩), নুর ইসলাম (১৯), পারভেজ মোল্লা (১৯) ও আবু তাহের (১৯)।

মঞ্জুরুল কবির বলেন, ‘বিভিন্ন নামিদামি ব্র্যান্ডের পণ্যের লোগো বা ছবি ডাউনলোড করে নিজেদের পণ্যে ফটোশপের মাধ্যমে বসিয়ে দিত। পরে এসব পণ্য নিজেদের বিভিন্ন অনলাইন শপিং সাইটে কম মূল্যে বিক্রির জন্য দিত। নামিদামি ব্র্যান্ডের পণ্যের মূল্য কম দেখতে পেয়ে ক্রেতারা আকৃষ্ট হয়ে দ্রুত অর্ডার করতেন। তবে অর্ডারের সময়ই পণ্যের টাকা অগ্রিম দিয়ে দিত হত। কিন্তু ডেলিভারির পাওয়ার পর দেখা যেতে নামিদামি ব্র্যান্ডের কথা বলে দেয়া হয়েছে নকল পণ্য। অনেক সময় আলু-পটলও দেয়া হতো।’

এ বিষয়ে কেউ অভিযোগ করলে প্রতারক চক্র বলত প্রতিষ্ঠানের ভুলের কারণে হয়ত নিন্মমানের পণ্য পেয়েছে। অথবা নিন্মমানের পণ্য পাঠানোর বিষয়টি অস্বীকার করা হতো। এভাবে চক্রটি দিনের পর দিন ক্রেতাদের বোকা বানিয়ে আসছিল।

ব্রান্ডসপ সেইল’র এর ফেসবুক পেজ থেকে তারা বিভিন্ন পণ্যের ছবি নিয়ে সেগুলো এডিট করে কম মূল্যে ক্রেতাদের কাছে বিক্রি করছিল। পরে প্রতিষ্ঠানটি বিষয়টি র‌্যাবকে জানায়। এরপর অভিযান চালিয়ে এই চক্রের ৭ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা মোবাইল, মেয়েদের গহনা, কাপড়সহ বিভিন পণ্য বিক্রির নামে ২০১৩ সাল থেকে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল।

প্রতারকদের ১৭টি পেজ জব্দ করা হয়েছে। সেগুলো হলো- Unique Fashion, Rose Fashion BD, Lifestyle.com, GreenXpress.Com, Gentle Fashion, Gentle Point, Fashion Point, Plus Point, Mobile Shop24, Arifull Islam Ariean, MD Tanvir Abutaher, Advance Electronics, Dream Fashion, Xian Rihan ও গয়না মহল, নিলয় মাহমুদ সুজন।

Print Friendly and PDF

———