চট্টগ্রাম, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ , ২রা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে ঈদের অজুহাতে কাপড়ের মুল্য বৃদ্ধি ঠেকাতে নজরদারী, ডিসি

সিটিজি টাইমস ডেস্ক প্রকাশ: ১২ মে, ২০১৯ ৯:৫৫ : অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামেচট্টগ্রামে অসাধু ব্যবসায়ীরা যাতে ঈদের অজুহাতে কাপড়ের মুল্য বৃদ্ধি করতে না পারে সে দিকে নজরদারী রয়েছে জানিয়ে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন বলেছেন, রমজানে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মুল্য নিয়ন্ত্রনে রাখা ও ভেজাল খাদ্য রোধে নগরীর বড়-ছোট পাইকারী ও খুচরা বাজারে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মাসব্যাপী বাজার মনিটরিং কার্যক্রমসহ মোবাইল কোর্টের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

আজ রোববার (১২ মে) সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত জেলা আইন- শৃঙ্খলা কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আইন-শৃংখলা বাহিনী, ক্যাব, বাজার কমিটির নেতৃবৃন্দসহ সংশ্লিষ্টদের নিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগন টানা বাজার মনিটরিং কার্যক্রম পরিচালনা করার ফলে পণ্যের মুল্য বাড়েনি।

চট্টগ্রামে আসন পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নির্বিঘ্নে কেনাকাটার সুবির্ধাথে মার্কেট-শপিং মলের আশপাশে নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, ছিনতাই ও মলম র্পার্টসহ বিভিন্ন অপরাধ রোধে প্রশাসন কঠোর নজরদারীতে রয়েছে।

বড় বড় মার্কেটগুলোতে থাকছে বাড়তি নিরাপত্তা। ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে বাসা-বাড়ীতে তালা দিয়ে অনেকে শহর ছেড়ে গ্রামে চলে যাবে। সে সময় যাতে কোন ধরনের চুরি-ডাকাতি সংঘঠিত না হয় সে ব্যাপারে পুলিশ-র‌্যাবসহ আইন-শৃংখলা বাহিনীর সর্বোচ্চ নজরদারী থাকবে।

চট্টগ্রামে ঈদকে টার্গেট করে জঙ্গি-সন্ত্রাসী বাহিনী যাতে এখানে মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে না পারে ও ঈদ জামাতে কোন ধরনের হামলা করতে না পারে সে লক্ষ্যে প্রশাসন সতর্কাবস্থানে থাকবে।

ঈদে নিজ নিজ এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে আইন-শৃংখলা বাহিনীর পাশাপাশি জনপ্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। যে কোন মুল্যে পবিত্র ঈদুল ফিতরের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।

ডিসি বলেন, কর্ণফুলী নদীর পাড়ের বেশ কিছুু অবৈধ স্থাপনা ইতোমধ্যে উচ্ছেদ করা হয়েছে। বাকী অবৈধ স্থাপনাগুলো শীঘ্রই উচ্ছেদ করা হবে। গরু চুরি রোধ, অবৈধ বালি উত্তোলন ও ব্যাটারী চালিত রিক্সা বন্ধের পাশাপাশি সড়কে যত্রতত্র গাড়ী পার্কিং, রাস্তা দখল করে দোকান নির্মানসহ বিভিন্ন অবৈধ স্থাপনা করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) নুরেআলম মিনা বলেন,পবিত্র মাহে রমজান ও ঈদুল ফিতর উপলক্ষে জেলার সকল উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থতি ঠিক রাখতে কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

ঈদে মানুষের কেনাকাটার সুবিধার্থে সড়কে যানজট নিরসন ও মার্কেটগুলোর আশপাশ এলাকায় ছিনতাইসহ নানা অপরাধ রোধে পোষাকধারী পুলিশ কাজ করছে। সন্ত্রাস , জঙ্গিবাদ ও মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশ কঠোর অবস্থানে রয়েছে।

এবার সাদা পোষাকে জেলার কোন পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করবেনা। রাস্তার উপর অবৈধ দোকান, অবৈধ পার্কিং, রেজিস্ট্রেশন বিহীন সিএনজি অটো রিক্সা ও অবৈধ ব্যাটারী রিক্সার কারনে হাটহাজারী সহ বিভিন্ন উপজেলা সদরে ও গুরুত্বপূর্ণস্থানে যানজট সৃষ্টি হয়।

কারা এগুলোর পেছনে জড়িত রয়েছে তাদেরকে চিহ্নিত করবো এবং জেলা প্রশাসন, বিআরটিএ, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ সংশ্লিষ্ঠদের সাথে নিয়ে অবৈধ গাড়ী গুলো উচ্ছেদে পদক্ষেপ নেয়া হবে।

ঈদের টানা ৯ দিনের বন্ধে মানুষের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পাশাপাশি পর্যটন এলাকা ও পর্যটকদের নিরাপত্তার বিষয়গুলো দেখা হচ্ছে। ঈদের ছুটিতে চুরি-ডাকাতি রোধসহ বাসা-বাড়ীর নিরাপত্তার বিষয়গুলোও গুরুত্ব সহকারে দেখা হবে।

এলাকার গরু চুরি রোধে থানা, পুালশ তদন্ত কেন্দ্র ও ফাঁড়ী পুলিশ সদস্যরা সজাগ দৃষ্টি রাখবে।

এজন্য উপজেলা প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও সংশ্লিষ্ঠ সকলের আন্তরিক সহযোগিতা প্রয়োজন। সুশাসন শুধু প্রশাসন নয়, প্রত্যেক জায়গায় সুশাসন দরকার।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় মাল্টিমিডয়ার মাধ্যমে গত এপ্রিল মাসের খাতওয়ারী অপরাধ চিত্র, সভার সিদ্ধান্ত ও অগ্রগতি তুলে ধরেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোহাম্মদ আবু হাসান সিদ্দিক।

সভায় সরকারের বিভিন্নস্তরে কর্মরত কর্মকর্তাসহ আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly and PDF

———