চট্টগ্রাম, বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯ , ৫ই আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ঈদকে সামনে রেখে

চট্টগ্রামের মার্কেট গুলো কঠোর নিরাপত্তা বলয়ে

আখতার হোসেন প্রকাশ: ২৭ মে, ২০১৯ ৪:৩৮ : অপরাহ্ণ

ঈদ আসলে মানুষের কেনাকাটা বেড়ে যায়। লোকজনের সমাগম বাড়ে শপিংমল ও মার্কেটগুলোতে। এসময় পরিবার পরিজনকে নিয়ে ঈদ কেনাকাটায় ব্যস্ত হয়ে পড়েন নগরবাসী। আপনার কেনাকাটায় নিরাপত্তা দিতে সজাগ দৃষ্টিতে ঠাঁই দাঁড়িয়ে নিজের দায়িত্ব পালন করছে পুলিশ।

এছাড়াও র‌্যাবের টহল টীম ও বিশেষ মহড়া প্রতিনিয়ত নগরীর গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে চলছে।

আসন্ন পবিত্র ঈদকে সামনে রেখে যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি রোধের পাশাপাশি বন্দরনগরী চট্টগ্রামের শপিংমল গুলোতে নেয়া হয়েছে এ বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

মার্কেটে ছিনতাই, পকেট কাটাসহ অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সিসিটিভি, আর্চওয়ে ও মেটাল ডিটেক্টর স্থাপন করে তৈরি করা হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা বলয়।

বিশেষ করে নিউ মার্কেট, রিয়াজ উদ্দিন বাজার, টেরী বাজার, শপিং কমপ্লেক্স, মিমি সুপার মার্কেট, আগ্রাবাদ, ইপিজেট এলাকাকে কেন্দ্র করে নিরাপত্তা বলয় জোরদার করা হয়েছে।

এদিকে, মার্কেট ও শপিংমলের অধিক জনসমাগমস্থলে পকেটমার, ছিনতাইকারী ও অজ্ঞান-মলম পার্টি প্রতিরোধে নিয়মিত পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকেও সার্বক্ষণিক নিরাপত্তায় নিয়োজিত রয়েছে পুলিশ।

মার্কেটের সামনে যানজট এড়াতে কোনো গাড়ি যাতে পার্কিং না করতে পারে সে লক্ষ্যে ট্রাফিক পুলিশের পাশাপাশি কাজ করছে কমিউনিটি পুলিশ।

নগরবাসীর মধ্যে নিরাপত্তাবোধ তৈরি হওয়ায় শপিং চলছে গভীর রাত পর্যন্ত। গভীর রাতে ক্রেতাদের বাড়ি ফেরা নির্বিঘ্নে করতে কাজ করছে টহল পুলিশ। এছাড়াও মার্কেটে ইভটিজিং প্রতিরোধে কাজ করছে পুলিশের বিশেষ দল এবং মহিলাদের নিরাপত্তায় দায়িত্ব পালন করছে নারী পুলিশ সদস্যরা।

ব্যার সূত্র জানায়, ব্যাপক প্রস্তুতি রয়েছে তাদের। যেন কোন ঘটনা না ঘটে। সেভাবে আমাদের ফোর্স তৈরী আছে। প্রতিটি স্পটে আমাদের লোকবল নিয়োজিত রয়েছে। তাছাড়া মহড়াও চলছে।

মধ্যরাতের অপরাধ নিয়ন্ত্রণে কোতোয়ালি পুলিশ!

রাতভর শহরজুড়ে আনাগোনা ক্রেতা বিক্রেতা ও ব্যবসায়িসহ সর্বস্থরের মানুষের।আর বিভিন্ন পয়েন্টে ওৎ পেতে বসে আছে চোর, ডাকাত ও ছিনতাইকারী দলের সক্রিয় সদস্যরা। একটু সুযোগ পেলেই নিরীহ জনগনের সর্বস্ব লুটে নিয়ে তারা পালাবে।

তবে এসব অপরাধীদের কার্যক্রমে এবার বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে নগরীর কোতোয়ালি থানা পুলিশ। ঈদ কেনা কাটা শুরুর পর থেকে নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ন পয়েন্টে মধ্যরাতে হঠাৎ করেই সারপ্রাইজ তল্লাশীতে নেমেছে পুলিশ। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোহসিনের নেতৃত্বে এ সারপ্রাইজ তল্লাশী অব্যাহত রয়েছে।

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোহসীন বলেন, ঈদকে সামনে রেখে মধ্যরাতে যেন কোন ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা না ঘটে এবং অপরাধীর কবল থেকে নিরীহ মানুষের জানমাল রক্ষার্থে মধ্যরাতে সারপ্রাইজ তল্লাশী অব্যাহত রেখেছি।

সিএমপির এডিসি শাহ মোহাম্মদ আব্দুর রউফ জানান, পবিত্র ঈদে নগরীর বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে চাঁদাবাজমুক্ত রাখতে, শপিংমলে নারীদের ইভটিজিংমুক্ত এবং ক্রেতা ও সাধারণ জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিতে গভীর রাত ৩টা পর্যন্ত কোতোয়ালি থানা পুলিশের বিশেষ টিম সর্বদা প্রস্তুত।

উল্লেখ্য, রবিবার ৯টার দিকে ঢাকায় পুলিশের গাড়িতে ককটেল হামলার পর চট্টগ্রামে নিরাপত্তা আরো বাড়ানো হয়েছে যেন সে ধরণের কোন অনাকাঙ্খিত ঘটনা চট্টগ্রামে না ঘটে।

Print Friendly and PDF

———