চট্টগ্রাম, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯

ছাত্রলীগের ধর্মঘট: আটকে গেল চবি’র শাটল ট্রেন, ক্যাম্পাসে রিকশা ও সিএনজি চলাচলও বন্ধ

প্রকাশ: ২০১৯-০৪-০৭ ০৯:৪১:৪০

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শাখা ছাত্রলীগের ডাকা ছাত্র ধর্মঘটের শুরুতেই আটকে দেয়া হল শাটল ট্রেন। পাশা-পাশি আন্দোলনকারীদের বাধার মুখে সকাল থেকে ক্যাম্পাস থেকে শিক্ষকদের কোনো বাস শহরে যেতে পারেনি। বন্ধ রয়েছে ক্যাম্পাসে রিকশা ও সিএনজি চলাচলও।

সকাল পৌনে ৮ টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে অবস্থান নিয়ে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন।

এদিকে, চট্টগ্রাম স্টেশন থেকে শাটল ট্রেনের ইঞ্জিন থেকে এক লোকো মাস্টারকে তুলে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এছাড়া কয়েকটি বগির হোস পাইপ কেটে দেয়ার ঘটনা ঘটেছে।  রোববার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে চট্টগ্রামের বটতলী স্টেশনে এ ঘটনা ঘটে।

চট্টগ্রাম রেলওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, শাটল ট্রেনের একজন লোকো মাস্টারকে তুলে নিয়ে যাওয়ার খবর শুনেছি৷ তাকে উদ্ধারে আমরা চেষ্টা করছি। হোস পাইপ কেটে দেয়ার বিষয়টি মৌখিকভাবে জেনেছি।

তিনি আরও বলেন, স্টেশনে ঢোকার আগে রেলওয়ে নিরপত্তা বাহিনীর আওতাধীন থাকে ট্রেনটি। তারা আমাদেরকে অবহিত করলে আমরা নিরাপত্তা দিয়ে স্টেশনে আসতে সহযোগিতা করতাম।

তবে এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

সম্প্রতি অস্ত্র মামলায় কারাগারে থাকা ছয় ছাত্রলীগ কর্মীর মুক্তি ও মামলা প্রত্যাহার, ২০১৫ সাল থেকে সকল রাজনৈতিক মামলা প্রত্যাহার, হাটহাজারী থানার ওসির প্রত্যাহার ও প্রক্টরের পদত্যাগের দাবিতে এ ধর্মঘটের ডাক দেয়া হয়।