চট্টগ্রাম, ১২ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯

উপজেলা নির্বাচনে ফটিকছড়ি: অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই নাজিম-তৈয়বের

প্রকাশ: ১৭ মার্চ, ২০১৯ ৯:২১ : অপরাহ্ণ

মীর মাহফুজ আনাম

নাজিম উদ্দিন মুহুরী আর এইচ এম আবু তৈয়ব। প্রথমজন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী, দ্বিতীয়জন অানারস প্রতীকের স্বতন্ত্র (বিদ্রোহী) প্রার্থী।

দু’জনে জাঁদরেল নেতা। ছাত্ররাজনীতি থেকে উঠে আসা আ’লীগের এ দু’নেতা দ্বিতীয় বারের মতো ভোটের মুখোমুখি হচ্ছেন কাল। দলের উপেজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে সর্বশেষ দু’জন ভোটের মুখোমুখি হয়েছিলেন। দলীয় ভোটারের কাছে সেবার পরাজিত হয়েছিলেন এইচ এম আবু তৈয়ব। শেষতক এবার মুখোমুখি উপজেলা চেয়ারম্যান পদে। দলের সাধারণ সম্পাদক পদে পরাজিত হওয়ার পর থেকে দুইভাগে গ্রুপিংয়ে বিভক্ত হয়ে পড়া উপজেলা আ’লীগের দু’জন দুই মেরুতে।

নাজিম মুহুরী দলীয় প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। তাঁকে আবারো চ্যালেন্জ জানালেন এইচ এম আবু তৈয়ব। এবার শুধু দলীয় নয়, আম জনতার ভোটের মুখোমুখি আ’লীগের এ দুই নেতা। এ যেন ভোট নয়, অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই নাজিম-তৈয়বের। বিএনপি বিহীন উপজেলা নির্বাচনে সারা দেশে ভোটের উত্তাপ না থাকলেও ফটিকছড়িতে রয়েছে ভোটের উত্তাপ, সাথে সংঘাতের শঙ্কা, আতঙ্ক। ইতিপূর্বে এ নির্বাচনকে ঘিরে দলের সিনিয়র কিছু নেতার সমর্থনের নিরব ভূমিকা, কারো কারো দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে গিয়ে স্পষ্ট সমর্থনসহ নানা আলোচনায় ভরপুর এ নির্বাচন।

অপরদিকে, দলীয় ও বিদ্রোহী দুই প্রার্থীর জয়-পরাজয়ের উপর নির্ভর করছে অনেক কিছু। স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতারা মনে করছেন, ভোটে হারলে রাজনীতির মাঠ থেকে দূরে সরে যেতে হবে এমন শঙ্কাও আছে প্রার্থীদের।

অতীত ঘটনা ও ভোটে জেতাকে অস্বিত্ব রক্ষার লড়াই ভেবে দুই প্রার্থী ও কর্মী সমর্থকেরা শেষ সময় পর্যন্ত সমানতালে প্রচারণা চালিয়েছেন। ফটিকছড়ির উত্তর ও দক্ষিণাঞ্চলের ১৮ টি ইউনিয়ন ও ২টি পৌরসভাকে ভোট ব্যাংকের দিক থেকে দু’ভাগে বিভক্ত করলে উত্তরাঞ্চলের ভোটে নৌকার প্রার্থী ও দক্ষিণাঞ্চলের ভোটে বিদ্রোহী প্রার্থী এগিয়ে থাকবেন। তবে, বিএনপির ভোটারদেরকে ভোট কেন্দ্রে টানতে পারলে তাদের ভোট গিয়ে পড়বে আনারসে।

জানা গেছে, নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করতে উত্তরজেলা আ’লীগ নেতৃবৃন্দ নানা মেকানিজম করছেন। আবার একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে নিশ্চিত হওয়া গেছে, বিদ্রোহী প্রার্থীকে জেতাতে খোদ উপজেলা আ’লীগের সভাপতি, সাংগঠনিক সম্পাদকসহ অনেকেই এক হয়েছেন। তাই এই দুই প্রার্থীর মধ্যে লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি।

নৌকার প্রার্থী নাজিম উদ্দিনমুহুরী বলেন, মনোনয়ন না পেয়ে একটি পক্ষ বিরুদ্ধাচরণ করছেন। কোন অপশক্তিই নৌকার বিজয় ঠেকাতে পারবেনা।’

আনারস প্রতীকের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী হুসাইন মো. আবু তৈয়ব বলেন, ‘রাজনীতির কারণে আমাকে অনেক কিছু হারাতে হয়েছে। আমার একটা ভাইকে জামায়াত-শিবির গুলি করে হত্যা করেছে। তবুও আমি পিছপা হইনি।

কর্মী-সমর্থকদের অনুরোধে প্রার্থী হয়েছি। তাদের আবেগ, ভালোবাসা ও গণমানুষের অকুন্ঠ সমর্থনই আনারসের বিজয় নিশ্চিত করবে।’