চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯

বাংলাদেশের ফের ইনিংস হারে সিরিজ নিউজিল্যান্ডের

প্রকাশ: ২০১৯-০৩-১২ ০৭:৩৫:২৫ || আপডেট: ২০১৯-০৩-১২ ১১:০২:১০

শঙ্কাটা ছিল এটাই। পঞ্চম দিনে কতখন টিকে থাকতে পারবে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। দুই দিন ভেস্তে যাওয়া টেস্ট ম্যাচ তিনদিনেই জিতে গেছে নিউজিল্যান্ড। তাও আবার পঞ্চম দিনে আড়াই ঘণ্টার মধ্যে বাকী সাতটি উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ।

ওয়েলিংটনে টেস্টের চতুর্থ দিনের খেলা শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে সফরকারীরা ৩ উইকেট হারিয়ে তুলেছিল ৮০ রান। ১৪১ রানে পিছিয়ে পঞ্চম বা শেষ দিন ব্যাট করতে নামা সফরকারীরা নিয়মিত উইকেট হারিয়ে অল আউট হয়েছে ২০৯ রানে।

এতে বাংলাদেশের নামের পাশে লেখা হয়ে গেছে হার। ১২ রানের ইনিংস ব্যবধানে হার। এই কটা রান করলে হয়তো হার থামানো যেতো না তবে, ইনিংস হার লেখা হতো। এ জয়ে তিন টেস্টের সিরিজ জিতে নিয়েছে নিউজিল্যান্ড। শেষ টেস্ট নিয়মরক্ষার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

পঞ্চম দিনে সাত উইকেট নিয়ে নামা ক্রিজে তখন সৌম্য ও মিঠুন। ২৮ রানের মাথায় সাজঘরে ফিরলেন সৌম্য। ভাঙতে থাকা পতনের বিরুদ্ধে একটু হলেও সোচ্চার হয়েছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মোহাম্মদ মিঠুনের ব্যাট। সান্ত্বনার ফিফটি করেছেন রিয়াদ। ক্যারিয়ারে ১৬তম অর্ধশতকে সম্মান বাঁচানোর লড়াই হয়েছে মাত্র। তবে, ২০৯ রানের মাথায় ওয়েগনারের বলে সাজঘরে ফিরতে হয়েছে রিয়াদকে (৬৭)।

মিঠুন আউট হয়েছেন অর্ধশতক থেকে তিনরান দূরে থেকে। লিটন এক রানেই বিদায় নিয়েছেন ক্রিজ থেকে। তাইজুল ফিরেছেন খাতা না খুলেই। উল্টো বোলার ফিজের ১৬ রান হয়তো খানিকটা আশা জিইয়ে রেখেছিল। তার যাওয়ার পর এবাদাতও ফিরেছে শূন্য রানেই।

আর তাতেই লেখা হয়ে গেলো হার। হ্যামিল্টনের পর ওয়েলিংটনে দ্বিতীয় হার। টেস্ট সিরিজ নিজের করে নিলো নিউজিল্যান্ড।

এর আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের প্রথম দুই দিন খেলা বৃষ্টির পেটে চলে যায়। তৃতীয় দিন অলআউট হওয়ার আগে ৬১ ওভারে বাংলাদেশ তোলে ২১১ রান। নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৬ উইকেট হারিয়ে ৪৩২ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে কিউইরা।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনফর্ম ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল ট্রেন্ট বোল্টের বলে বোল্ড হওয়ার আগে করেন ৪ রান। তিন নম্বরে নামা মুমিনুল হক আবারো ব্যর্থ। বোল্টের বলে টিম সাউদির তালুবন্দি হয়ে ফেরার আগে করেন ১০ রান। উইকেটে থিতু হলেও ৪৪ বলে চারটি চারের সাহায্যে ২৯ রান করে ফেরেন সাদমান ইসলাম।

বৃষ্টিভেজা দু’টি দিনের পর ওয়েলিংটনে তৃতীয় দিনে বাংলাদেশের বিপক্ষে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। তৃতীয় দিনে বেসিন রিজার্ভে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দেখে শুনেই ব্যাট চালাতে থাকেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সাদমান ইসলাম। উদ্বোধনী জুটিতে দু’জন মিলে গড়েন ৭৫ রানের জুটি। হ্যামিল্টন টেস্টে ৫৭ ও ৮৮ রানের জুটির পর ওয়েলিংটনে শুরুর জুটিতে ৭৫ রান পায় বাংলাদেশ। যা নিউজিল্যান্ডের মাটিতে টেস্ট ইতিহাসে সফরকারী কোনো দলের উদ্বোধনী জুটিতে দ্বিতীয়বার টানা তিন অর্ধশত।

৫৩ বলে চারটি চারের সাহায্যে সাদমান ২৭ রান করে গ্রান্ডহোমর বলে আউট হন। তামিম টেস্ট ক্যারিয়ারে ২৭তম অর্ধশতক তুলে নেন। আগের ম্যাচে তামিম করেছিলেন ১২৬ আর ৭৪ রান। এই ম্যাচেও তার ব্যাট হেসেছে। ১১৪ বলে ১০টি বাউন্ডারিতে তামিম করেন ৭৪ রান। এছাড়া, মুমিনুল ১৫, মিঠুন ৩, সৌম্য ২০, মাহমুদউল্লাহ ১৩, লিটন দাস ৩৩ রান করেন। শেষ দিকে তাইজুল ৮, মোস্তাফিজ ০ এবং আবু জায়েদ ৪ রান করেন।

নিউজিল্যান্ডের ট্রেন্ট বোল্ট তিনটি, নেইল ওয়াগনার চারটি, টিম সাউদি একটি, ম্যাট হেনরি একটি আর গ্রান্ডহোম একটি করে উইকেট পান।

ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ৮ রানেই দুই ওপেনারকে হারায় নিউজিল্যান্ড। জীত রাভাল (৩) আর টম ল্যাথামকে (৪) ফিরিয়ে দেন বাংলাদেশের পেসার আবু জায়েদ রাহি। এরপর বৃষ্টির কারণে তৃতীয় দিনের খেলা বন্ধ হয়ে যায়। চতুর্থ দিন দলপতি কেন উইলিয়ামসন ৭৪ রান করে বিদায় নেন। রস টেইলর ২০০ রান করে বিদায় নেন। ২১২ বলে তার সাজনো ইনিংসে ছিল ১৯টি চার আর চারটি ছক্কার মার। হেনরি নিকোলস ১২৯ বলে ৯টি বাউন্ডারিতে করেন ১০৭ রান। বিজে ওয়াটলিং ৮ রান করেন। কলিন ডি গ্রান্ডহোম ২৩ রানে অপরাজিত থাকেন।

বাংলাদেশের পেসার আবু জায়েদ তিনটি, স্পিনার তাইজুল ইসলাম দুটি আর পেসার মোস্তাফিজুর রহমান একটি উইকেট পান।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সাদমান ইসলাম, সৌম্য সরকার, মুমিনুল হক, মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, লিটন দাস, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ, এবাদত হোসাইন ও মোস্তাফিজুর রহমান।

নিউজিল্যান্ড একাদশ: জিত রাভাল, টম ল্যাথাম, কেন উইলিয়ামসন, রস টেইলর, হেনরি নিকোলস, বিজে ওয়াটলিং, কলিন ডি গ্রান্ডহোম, ম্যাট হেনরি, টিম সাউদি, নেইল ওয়াগনার ও ট্রেন্ট বোল্ট।