চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯

টেকনাফে দু’গ্রুপের গুলাগুলিতে ‘মাদক কারবারী নিহত, অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার দাবি পুলিশের

প্রকাশ: ২০১৯-০৩-১১ ১৩:২২:১৫ || আপডেট: ২০১৯-০৩-১১ ১৩:২২:২৩

আমান উল্লাহ কবির
টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

কক্সবাজারের টেকনাফে দু’গ্রুপ মাদক কারবারীদের মধ্যে গুলাগুলির ঘটনায় আবদুর রহমান (২৩) নামে এক মাদক কারবারী নিহত হয়েছে। ঘটস্থল থেকে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশের দাবি তিনি মাদক ব্যবসায়ী।

১১ মার্চ সোমবার ভোরে টেকনাফের হোয়াইক্যং সাতঘরিয়া পাড়া শিয়াল্যাঘোনা এলাকাায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত মাদক কারবারী হোয়াইক্যং পূর্ব মহেষখালীয়া পাড়ার শাহ আলমের ছেলে।

হোয়াইক্যং পুলিশ ফাঁড়ীর ইনচার্জ এসআই দীপংকর রায় জানান, গভীর রাতে হোয়াইক্যং ইউনিয়নের খারাংখালী মহেশখালীয়া পাড়া এলাকায় দুই গ্রুপ মাদক কারবারীদের মধ্যে গুলাগুলির সংবাদ পেয়ে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পৌঁছলে মাদক কারবারীরা পালিয়ে যায়। পরে সেখানে তল্লাশি চালিয়ে ৩ হাজার ইয়াবা, একটি দেশীয় এলজি, ৬ রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও ৯ রাউন্ড গুলির খালি খোসা উদ্ধার করা হয়। এসময় আবদুর রহমানকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে টেকনাফ হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে কক্সবাজারে রেফার করে। কক্সবাজার নেওয়ার পথেই সে মারা যায়। তবে সে মাদক কারবারী ছিল বলে তার দাবি। তার বিরুদ্ধে ইয়াবা সংক্রান্ত একাধিক মামলা রয়েছে। পুলিশ গুলিবিদ্ধ লাশটি রিপোর্ট তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করেছে।
এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ।

এদিকে স্বজনদের দাবী, ওই এলাকার অর্থাৎ ৯ ওয়ার্ড থেকে তারা গত কয়েকমাস আগে ৩ নং ওয়াডের দৈংগ্যাকাটা এসে বসতি শুরু করেন। গত ৯ দিন আগে আব্দুর রহমান হ্নীলা থেকে নিখোঁজ হয়েছিল। এমনটিও জানান, ৩ নং ওয়ার্ডের গ্রাম পুলিশ নবী হোছন।