চট্টগ্রাম, , রোববার, ২৪ মার্চ ২০১৯

কেএসআরএম’র উদ্যোগ: চট্টগ্রামে অপরাধ ঠেকাতে ৬৪ স্পটে সিসি ক্যামেরা

প্রকাশ: ২০১৯-০৩-১০ ২১:৩০:০৪ || আপডেট: ২০১৯-০৩-১১ ১১:৪১:১১

রাজনৈতিক সহিংসতা সহ চুরি-ছিনতাই এর মতন বিভিন্ন অপরাধ ঠেকাতে চট্টগ্রাম নগরীর বাগমনিরাম ওয়ার্ডকে আনা হচ্ছে ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরার আওতায়।

চট্টগ্রাম সিটির ১৫ নং বাগমনিরাম ওয়ার্ডের অপরাধপ্রবণ ৬৪টি স্পট সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হচ্ছে। সিসি ক্যামেরা ক্রয় থেকে স্থাপন পর্যন্ত সম্পূর্ণ আর্থিক সহায়তা করছে দেশের প্রতিষ্ঠিত শিল্প প্রতিষ্ঠান ও চট্টগ্রামের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগ্রুপ কবির স্টিল রি-রোলিং মিলস (কেএসআরএম) লিমিটেড।

শুক্রবার (০৮ মার্চ) বাগমনিরাম ওয়ার্ডের কোতোয়ালী থানার অংশে সিসি ক্যামেরা লাগানোর কাজ শুরু হয়। এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মো. মোহসীন। এসময় কেএসআরএম শিল্প প্রতিষ্ঠানের উদ্ধতন কর্মকর্তা ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, ছিনতাই, খুন, অনৈতিক কর্মকান্ড, দুর্ঘটনা ও নানা অঘটনের দৃশ্য সংরক্ষিত রেখে প্রশাসনকে সহযোগীতা করার লক্ষ্যে শিল্প প্রতিষ্ঠান কেএসআরএম’র নিজস্ব খরচে হাই রেজ্যুলেশনের নাইট ভিশন মোডের উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ক্যামেরাগুলো বাইরে থেকে আমদানি করেন। তাছাড়া এগুলো স্থাপনে ও রক্ষণাবেক্ষনের যাবতীয় খরচাদিও প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বহন করা হবে।

ইতিমধ্যে ৩২টি স্পটে সিসি ক্যামেরা বসানোর কাজ সম্পন্ন করেছে প্রশাসন। আগামী দুই একদিনের মধ্যে স্থাপন করা হবে বাগমনিরাম ওয়ার্ডের আরো ৩০ স্পটে ৩০টি সিসি ক্যামেরা। শুধু বাগমনিরাম ওয়ার্ড ছাড়াও আগামী রমজান শুরুর আগেই চট্টগ্রাম নগরীর ১৮৫টি অপরাধপ্রবণ এলাকায় এসব সিসি ক্যামেরা স্থাপন করার আশা প্রকাশ করেছেন চট্টগ্রামের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগ্রুপ কবির স্টিল রি-রোলিং মিলস (কেএসআরএম) লিমিটেড।

কেএসআরএম’ উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি) শাহরিয়ার জাহান বলেন, বাগমনিরাম ওয়ার্ড এলাকাবাসীর সুবিধার্থে যে কোনো সামাজিক কর্মকান্ড এবং অপরাধ দমনের জন্য কেএসআরএম গ্রুপ প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের পাশে আছে। এরই ধারাবাহিকতায় প্রয়োজনে চট্টগ্রামের পুরো নগর জুড়ে সিসি ক্যামেরা স্থাপনে পুলিশকে সহযোগিতা করবে কেএসআরএম।

রবিবার সকালে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ১৫ নং বাগমনিরাম ওয়ার্ড এলাকার বিভিন্ন স্পটে ঘুরে দেখা যায়, শিল্পকলা একাডেমী, মসজিদ-মন্দির, চারুকলা ইনস্টিটিউট ও ওই এলাকার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টের প্রধান সড়কের মুখে এসব সিসি ক্যামেরা স্থাপনের কাজ চলছে। কিছু কিছু এলাকায় বৈদ্যুতিক খুটি ও ভবনের সম্মুখে দৃশ্যমান ভাবে লাগানো হয়েছে হাই রেজ্যুলেশনের নাইট ভিশন মোডের উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ক্যামেরাগুলো।

সিসি ক্যামেরার নিচে লাগানো হয়েছে কেএসআরএম’র লোগো সম্বলিত আকর্ষনীয় স্টিকার। এলাকাবাসীকে সচেতন করতে ও অপরাধীদের সতর্ক করতে এসব স্টিকারে দৃষ্টি আকর্ষণ শিরোনামে লেখা আছে অত্র এলাকায় অবস্থানরত সকলের গতিবিধি ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরার মাধ্যমে সার্বক্ষনিক পর্যবেক্ষণ ও রেকর্ড করা হচ্ছে।

তাছাড়া এলাকাবাসীর সুবিধার্থে বেশ কয়েকটি সিসি ক্যামেরার নিচে কেএসআরএম প্রতিষ্ঠানের লাগানো লোগোতে জরুরি প্রয়োজনে পুলিশের হেল্পলাইনের নম্বর- ৯৯৯ দেওয়া আছে। এছাড়াও ইভটিজিং প্রতিরোধ, মাদককে না বলুন, ময়লা আবর্জনা নির্দ্দিষ্ট স্থানে ফেলুন এমন অনেক ধরনের উক্তি শোভা পাচ্ছে সিসি ক্যামেরার নিচের লাগানো স্টিকারে।

চট্টগ্রাম নগরীর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ওয়ার্ড ১৫ নং ওয়ার্ড বাগমনিরাম উল্লেখ করে সিসি ক্যামেরা স্থাপনকাজের উদ্বোধক ও কোতোয়ালি থানার ওসি মো. মোহসীন জানিয়েছেন, সমাজ উন্নয়নে এ ধরনের কার্যক্রমের উদ্দ্যোগ ও অংশগ্রহণে চট্টগ্রামের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগ্রুপ কবির স্টিল রি-রোলিং মিলস (কেএসআরএম) লিমিটেড প্রশংসার দাবি রাখে।

ওসি বলেন, জনগুরুত্বপূর্ণ এ উদ্দ্যেগের ফলে ভবিষ্যতে এ ওয়ার্ডের যাবতীয় সকল ঘটনায় পুলিশ দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারবে। তাছাড়া বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার ভিডিও ধারণ ও সংরক্ষিত রেখে অপরাধীদের গ্রেফতারে যথেষ্ট ভুমিকা রাখবে কেএসআরএম’র উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন সিসি ক্যামেরাগুলো।

পুরো এলাকা জুড়ে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের ফলে অপরাধপ্রবণ এলাকা হিসেবে পরিচিত বাগমনিরাম ওয়ার্ডে অপরাধের মাত্রা অনেকটাই কমে আসবে বলে মনে করেন ওসি মো. মোহসীন।