চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯

কালবৈশাখী তাপদাহ বন্যা, সবই আছে মার্চের পূর্বাভাসে

প্রকাশ: ২০১৯-০৩-০৪ ১৭:০০:২১ || আপডেট: ২০১৯-০৩-০৪ ১৭:০০:৩০

দেশের ‍উত্তর, উত্তর-পশ্চিম ও মধ্যভাগে ১ থেকে ২ দিন শিলাবৃষ্টিসহ মাঝারি বা তীব্র কালবৈশাখী হতে পারে এ মাসে

মার্চ মাসের শুরুতে দেশের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে বজ্রঝড় ও কালবৈশাখীর আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

সেই সঙ্গে মাসের শেষ দিকে মাঝারি তাপপ্রবাহেরও পূর্ভাভাস রয়েছে। সে সময় থার্মোমিটারের পারদ উঠতে পারে ৩৮ থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

ভারি বর্ষণের কারণে এ মাসেই দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে আকস্মিক বন্যার শঙ্কা রয়েছে বলে জানানো হয়েছে মার্চের দীর্ঘমেয়াদী পূর্বাভাসে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ বলেন, মার্চ মাসে দেশের ‍উত্তর, উত্তর-পশ্চিম ও মধ্যভাগে ১ থেকে ২ দিন শিলাবৃষ্টিসহ মাঝারি বা তীব্র কালবৈশাখী বা বজ্রঝড় হতে পারে।

পাশাপাশি দেশের অন্যান্য জায়গায় ৩ থেকে ৪ দিন শিলাবৃষ্টিসহ হালকা বা মাঝারি কালবৈশাখী বা বজ্রঝড় হতে পারে।

ওই সময় দিনের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে (৩৪-৩৬ ডিগ্রি সেলাসিয়াস) সামান্য বেশি থাকতে পারে।

মাসের শেষ দিকে দেশের পশ্চিম ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে একটি মৃদু তাপপ্রবাহ (৩৬ থেকে ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস) অথবা মাঝারি ধরনের (৩৮ থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস) তাপদাহ বয়ে যেতে পারে বলে জানান সামছুদ্দিন।

তিনি বলেন, সামগ্রিকভাবে মার্চ মাসে দেশের বেশিরভাগ এলাকায় স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হতে পারে। তবে দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে ভারি বর্ষণ হতে পারে, আর তাতে দেখা দিতে পারে আকস্মিক বন্যা।

সোমবারের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এদিন খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও ঢাকা বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা/ঝড়ো হাওায়াসহ বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। বিক্ষিপ্তভাবে কোথাও কোথাও হতে পারে শিলাবৃষ্টি।

সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে, তবে রাতের তাপমাত্রা বাড়তে পারে ১-২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেও বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়ে রেখেছে আবহাওয়া অফিস।