চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯

‘সব থেকে বেশি খুশি হতেন মহিউদ্দিন’ নওফেলের চোখে জল

প্রকাশ: ২০১৯-০২-২৪ ১৭:৩৫:৫৪ || আপডেট: ২০১৯-০২-২৫ ১২:৪০:৩২

কর্ণফুলী নদীর তলদেশে টানেল এর বোরিং কাজের উদ্বোধনে এসে প্রয়াত মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীকে স্মরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় এত বড় নদীর তলদেশে টানেল নির্মাণ হচ্ছে। ২০১০ সালে আমি এই ঘোষণা দিয়েছিলাম।

“আপনারা জানেন আমাদের মহিউদ্দিন চৌধুরী যিনি মেয়র ছিলেন, তিনি কর্ণফুলী নদীতে টানেল নির্মাণের জন্য আন্দোলন করেছিলেন। এই নদীতে বারবার সেতু হওয়ায় পলি পড়ে যাচ্ছিল। তাই তিনি টানেল চেয়েছিলেন। তার আন্দোলনে যুক্তিও ছিল “

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজ আমি তাকে স্মরণ করছি। সকল আন্দোলন সংগ্রামে তিনি ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধেও তিনি অবদান রেখেছেন। আজকে তিনি বেঁচে থাকলে সব থেকে বেশি খুশি হতেন। তিনি আজ নেই।

উল্লেখ্য, কর্ণফুলী নদীতে শাহ আমানত সেতু নির্মাণের সময় পিলার সেতুর পরিবর্তে ঝুলন্ত সেতু নির্মাণের দাবিতে আন্দোলন করেছিলেন মহিউদ্দিন চৌধুরী।

পাশাপাশি নদীর দুই পাড়কে সংযুক্ত করতে টানেল নির্মাণের দাবিও জানিয়েছিলেন চট্টগ্রামের তিন বারের মেয়র মহিউদ্দিন।

প্রধানমন্ত্রীর মুখে যখন বাবার কীর্তির গল্প, উচ্ছ্বসিত প্রশংসা তখন মহিউদ্দিন-পুত্র শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরীর চোখে লোনাজল জল। আবেগাপ্লুত হয়ে বারবার তিনি চোখের জল মুছছিলেন। সমাবেশস্থলের সবার দৃষ্টি তখন নওফেলের প্রতি।