চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯

দায়িত্বরত অবস্থায় কর্ণফুলী থানার এএসআই’র মৃত্যু

প্রকাশ: ২০১৯-০২-২৩ ১২:৫৮:৫৫ || আপডেট: ২০১৯-০২-২৩ ১২:৫৮:৫৯

দায়িত্বরত অবস্থায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে কর্ণফুলী থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মোহাম্মদ হোসাইন (৪৫) এর মারা গেছেন। শুক্রবার দিবাগত রাত দুইটায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ সময় তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কর্ণফুলী থানার এক আসামির পাহারায় নিয়োজিত ছিলেন।

তিনি ব্রাম্মণবাড়িয়া জেলার কসবা থানার মৃত আবদুল গনির পুত্র। তার দুই ছেলে ও ১ মেয়ে রয়েছে বলে জানা গেছে।

পুলিশ সূত্রে জানায়, শুক্রবার রাত ৮টায় চমেক হাসপাতালে দায়িত্ব পালনের জন্য যান কর্ণফুলী থানার এএসআই মোহাম্মদ হোসাইন। কর্ণফুলী থানায় গ্রেপ্তারকৃত নিয়মিত আসামী ভর্তি ছিলেন চমেক হাসপাতালে। আসামীর তদারকির জন্য দায়িত্ব পালনকালে হোসাইন এর বুকে ব্যাথা অনুভব করেন। পরে তাকে হাসপাতালের জরুরী বিভাগে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মোহাম্মদ হোসাইনের সহকর্মীরা জানান, এর আগেও তিনি কয়েকবার ব্যাথা অনুভব করেন। পরে তা স্বাভাবিক হয়ে যাওয়ায় তিনি সেভাবে আমলে নেননি।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কর্ণফুলী থানার ওসি (তদন্ত) হাসান ইমাম বলেন, দায়িত্বপালন কালে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ হোসাইন মারা গেছেন। শুক্রবার রাত ৮টায় নিয়মিত আসামীদের ভর্তি জনিত কারনে দায়িত্ব পালনের জন্য চমেক হাসপাতালে গিয়েছিলেন তিনি।

থানার পুলিশ সদস্য মো. রফিক জানান, ‘এএসআই মোহাম্মদ হোসেন অত্যন্ত ভালো লোক ছিলেন। ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করতেন তিনি।’

এ ঘটনায় জেলা পুলিশ সদস্যদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। শনিবার ১০টা ৪৫ মিনিটে পুলিশ লাইনে তার প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরে গ্রামের বাড়ি ব্রাম্মনবাড়িয়া নেওয়া হবে বলে পুলিশ সুত্রে জানা যায়।