চট্টগ্রাম, , রোববার, ২৪ মার্চ ২০১৯

প্রথম প্রহরে চট্টগ্রামে ফুল আর শ্রদ্ধায় শহীদ স্মরণ

প্রকাশ: ২০১৯-০২-২১ ০৬:৩৮:৫৩ || আপডেট: ২০১৯-০২-২১ ০৬:৩৮:৫৭

মাতৃভাষা বাংলায় কথা বলার অধিকার চেয়ে ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি যারা রাজপথে নেমে জীবন উৎসর্গ করেছিলেন, সেই মৃত্যুঞ্জয়ী শহীদদের স্মরণ করছে চট্টগ্রামবাসী।

প্রতিবছরের মত এবারও চট্টগ্রামে একুশের মূল আয়োজন ছিল কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। একুশের প্রথম প্রহরে বিউগলের করুণ সুরে ভাষাশহীদদের স্মরণ করে শুরু হয় আনুষ্ঠানিকতা।

একুশের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে প্রথমে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, রেলপথ মন্ত্রণালয় বিষয় সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী।

এরপর চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এবং চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগও এ সময় শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এরপর একে একে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ সালাম, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম, চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান, চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার নুরেআলম মিনা, জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন।

রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে ১৯৫২ সালের এই দিনে বাঙালির রক্তে রঞ্জিত হয়েছিল রাজপথ। রক্তের দামে এসেছিল বাংলার স্বীকৃতি আর তার সিঁড়ি বেয়ে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত হয় স্বাধীনতা।

মাতৃভাষার মর্যাদা রক্ষায় বাঙালির এই আত্মত্যাগের দিনটি এখন আর বাংলাদেশেই সীমাবদ্ধ নয়; ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন করা হচ্ছে সারা বিশ্বে। বাঙালির ভাষার সংগ্রামের একুশ এখন বিশ্বের সব ভাষাভাষীর অধিকার রক্ষার দিন।

গর্ব আর শোকের এই দিনটি বৃহস্পতিবার বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালন করবে জাতি, যার সূচনা শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর মধ্য দিয়ে।