চট্টগ্রাম, , শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

জিয়া স্মৃতি জাদুঘরের নাম পরিবর্তনের দাবিতে ছাত্রলীগের গণ-স্বাক্ষর

প্রকাশ: ২০১৯-০২-১৩ ১২:৫৮:১৪ || আপডেট: ২০১৯-০২-১৩ ২০:০২:২২

জিয়া স্মৃতি জাদুঘরের নাম পরিবর্তন করে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর নামকরণ করার দাবিতে ‘চট্টলার সচেতন ছাত্র-যুব সমাজ’ সংগঠনের ব্যানারে গণ-স্বাক্ষর কর্মসূচি পালন করেছে ছাত্রলীগ। মঙ্গলবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বেলা ৪টার দিকে নগরের কাজীরদেউড়ীতে জিয়া স্মৃতি জাদুঘরের সামনে এ কর্মসূচি আয়োজন করা হয়।

চট্টলার সচেতন ছাত্র-যুব সমাজের সভাপতি ও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক কার্যনির্বাহী সদস্য ও মহানগর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইরফানুল আলম জিকুর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক ও নগর ছাত্রলীগের কর্মসূচি ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক মিনহাজুল আবেদিন সানির পরিচালনায় এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মসূচিতে বক্তরা বলেন, জিয়া একজন পাঠকমাত্র, তিনি কখনো মুক্তিযুদ্ধো এবং বাংলাদেশের অংশ না। চট্টগ্রামের মত গুরুত্বপূর্ন এ জাদুঘরকে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস এবং স্মৃতি সংরক্ষনের জন্য এর নাম পরিবর্তন করে চট্টলাসহ সারা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে।

এর আগে, গত মঙ্গলবার সকাল ১১টা থেকে বেলা সোয়া ১২টা পর্যন্ত মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের ছাত্র ফোরাম নামের একটি সংগঠনের মানববন্ধন ও সমাবেশ চলাকালে চট্টগ্রামে জিয়া স্মৃতি জাদুঘরের নামফলক থেকে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের নাম কালি দিয়ে মুছে দিয়েছে ছাত্রলীগ নেতারা।

জিয়া স্মৃতি জাদুঘরকে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘরে রূপান্তরিত করার দাবিতে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

উল্লেখ্য, গত সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে চট্টগ্রাম-৯ আসনের সাংসদ মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল জিয়া স্মৃতি জাদুঘরের নাম পাল্টে ‘মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর’ করার প্রস্তাব করেন।

প্রস্তাবের পক্ষে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এবং পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বৈঠকে বক্তব্য রাখেন।

চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে ১৯৮১ সালের ৩০ মে রাতে নিহত হন তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান। ১৯৯১ সালে বিএনপি ক্ষমতাসীন হলে এখানে জিয়া স্মৃতি জাদুঘর করা হয়।