চট্টগ্রাম, , শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

চট্টগ্রামেও মেট্রোরেল নির্মাণের পরিকল্পনা

প্রকাশ: ২০১৯-০১-২৯ ১৬:৩৪:১৭ || আপডেট: ২০১৯-০১-২৯ ১৬:৫৫:৫১

ভবিষ্যৎ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা, দ্রুত ও উন্নত গণপরিবহন সেবার লক্ষ্যে চট্টগ্রামে মেট্রোরেল নির্মাণের পরিকল্পনা নিয়েছে সিডিএ। খবর – সময় টিভি

প্রকল্পের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে চায়না রেলওয়ে কোম্পানির সাথে চুক্তি হবে এ সপ্তাহে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এটি চালু হলে যানজট নিরসনের পাশাপাশি দ্রুত সময়ে এক সাথে হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করতে পারবে।

মেট্রোরেল। উন্নত বিশ্বে নগরবাসীর দ্রুত যাতায়াতের জনপ্রিয় মাধ্যম। তাই চট্টগ্রামেও মেট্রোরেল নির্মাণের পরিকল্পনা নিয়েছে সিডিএ। সিডিএ বলছে, আগামীতে বন্দরের কর্মকাণ্ড বৃদ্ধি ও ঢাকা-চট্টগ্রাম হাইস্পিড রেল চালু হবে। এ নেটওয়ার্কে যুক্ত এবং সময়ের গতিতে চলতে হলে নগরবাসীর প্রয়োজন মেট্রোরেল। প্রাথমিকভাবে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এলাকা, পরে তা সম্প্রসারণ করা হবে অর্থনৈতিক অঞ্চল মীরসরাই ও সীতাকুন্ড পর্যন্ত।

চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম বলেন, ‘আমরা আপাতত সিটি করপোরেশনের এলাকাকেই পরিকল্পনায় রেখেছি।’

আন্তর্জাতিক মানদণ্ড অনুযায়ী কোন শহরের জনসংখ্যা ২০ লাখের বেশি হলে প্রয়োজন মেট্রেরেলের। সিডিএ এর নেয়া এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন নগরবাসী। তারা বলেন, ‘মেট্রোরেল হলে যানজটও কমবে, যোগাযোগ ব্যবস্থাও ভালো হবে।’

বন্দর নগরী চট্টগ্রামে এখন ঘণ্টায় যানবাহনের গতি ১২-১৫ কিলোমিটার। গতি বাড়াতে হলে এখন থেকে নিতে হবে মেট্রোরেলের পরিকল্পনা। নইলে অচল হয়ে যাবে বন্দরনগরী এমন মন্তব্য বিশেষজ্ঞদের।

নগর পরিকল্পনাবিদ স্থপতি আশিক ইমরান বলেন, ‘আমরা যেই শহরকে বাণিজ্যিক শহর বলছি সেখানে যান চলাচলের এমন সমস্যা কাম্য নয়। সুতরাং এই শহরে মেট্রোরেল হলে মানুষের যাতায়াত সহজ, যানজটহীন ও আরামদায়ক হবে।’

নগর পরিকল্পনাবিদ প্রফেসর ইঞ্জিনিয়ার আলী আশরাফ বলেন, ‘গণপরিবহনের সমস্যা কাটাতে হলে আমাদের বিকল্প ভাবতে হবে। সেক্ষেত্রে মেট্রোরেল একটা কার্যকর ব্যবস্থা হতে পারে।’

চট্টগ্রাম নগরীতে প্রায় ৬০ লাখ মানুষের বসবাস। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে প্রতিদিন দুই লাখের বেশি মানুষ প্রবেশ করে নগরীতে। এদিকে, রাজধানীতে মেট্রোরেল নির্মাণের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে।