চট্টগ্রাম, , শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

আগামী পাঁচ বছর নিরপেক্ষ থাকব: সিএমপি কমিশনার

প্রকাশ: ২০১৯-০১-২৮ ১৭:৩৪:২৭ || আপডেট: ২০১৯-০১-২৮ ২২:০০:২৭

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার মো. মাহাবুবর বলেছেন, দলীয় পরিচয় আমাদের কাছে মুখ্য নয়। আগামী পাঁচ বছর আমরা নিরপেক্ষ থাকব। অন্ততপক্ষে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিপক্ষে নিরপেক্ষ অবস্থান থাকবে।

সোমবার বেলা ১১টার দিকে নগরের প্রবর্তক মোড়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সংলগ্ন এলাকার সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সিসিটিভি ক্যামেরার কার্যক্রম উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

এ সময় সিএমপি কমিশনার আরো বলেন, জনপ্রতিনিধিরা মানুষের কথা বলবেন, মানুষের ভালোর জন্য এগিয়ে আসবেন। তবে যে জনপ্রতিনিধি মানুষের কথা বলবেন না, সন্ত্রাসীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দেবেন, তিনি জনপ্রতিনিধি হতে পারবেন না।

তিনি বলেন, আপনারা গত ১৫-২০ দিনে দেখেছেন, সারা বাংলাদেশে কোনো অপরাধ হলে সে সরকারি দলের হোক আর বিরোধী দলের হোক, সমানভাবে ট্রিটমেন্ট পাচ্ছে।

সিএমপি কমিশনার বলেন, নতুন সরকার অনেক অনেক ‘অ্যাডভান্সড’। গত ১০ বছরের মতো সামনের ৫ বছর হবে, যদি কেউ মনে করে থাকেন, এটা হবে না। এই ৫ বছর গত ১০ বছরের তুলনায় ভিন্ন হবে।

এটা আমাদের পুলিশের জন্য যেমন প্রযোজ্য। তেমনি সবার জন্য প্রযোজ্য। যারা রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতায় সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে থাকেন—তাদের জন্যও প্রযোজ্য।

এদিন পুলিশ সেবা সপ্তাহ-২০১৯ এর দ্বিতীয় দিনে পাঁচলাইশ থানা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির আয়োজনে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সংলগ্ন এলাকায় মোট ১৬টি সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়।

সিএমপির এ শীর্ষ কর্তা বলেন, আমি সবাইকে হুঁশিয়ার করতে চাই, বলতে চাই, দলীয় পরিচয় আমাদের কাছে মুখ্য নয়। আগামী পাঁচ বছর আমরা নিরপেক্ষ থাকব। সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধি, জনগণ, পুলিশ—সবাই মিলে একটি সুন্দর সমাজ গঠন করতে চাই।

নগরবাসীর উদ্দেশে সিএমপি কমিশনার বলেন, আপনারা মহানগর এলাকার প্রতিটি থানায় যাবেন। দেখবেন, বিভিন্ন বুথ সাজিয়ে, স্টল সাজিয়ে পুলিশ অফিসারবৃন্দ সেবা দেওয়ার জন্য উদগ্রীব হয়ে বসে আছেন আপনাদের অপেক্ষায়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন—চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) আমেনা বেগম ও সিএমপির উপকমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক।

পাঁচলাইশ থানা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের আহ্বায়ক শামছুল আলম শামীমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন—চকবাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইয়েদ গোলাম হায়দার মিন্টু, বাগমনিরাম ওয়ার্ড কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন, শুলকবহর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোরশেদ আলম, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর আঞ্জুমান আরা ও ৩২ নম্বর বিট কমিউনিটি পুলিশিং সভাপতি জসিমুল আনোয়ার খান।

এ সময় নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (উত্তর) মিজানুর রহমান, সহকারী পুলিশ কমিশনার (পাঁচলাইশ) দেবদূত মজুমদার, পাঁচলাইশ থানার ওসি আবুল কাশেম ভূঁইয়া ও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক জহিরুল হক ভূঁইয়াসহ আরো অনেকে।