চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০১৯

নতুন বছরের প্রথম সপ্তাহে চট্টগ্রামে ৭ খুন

প্রকাশ: ২০১৯-০১-০৯ ১০:৫৮:০১ || আপডেট: ২০১৯-০১-০৯ ১৩:৪৫:২৬

নতুন বছরের প্রথম সপ্তাহে চট্টগ্রামে সাতটি খুনের ঘটনা ঘটেছে। অধিকাংশ খুনই অভ্যন্তরীণ গ্রুপিংয়ের কারণে হয়েছে বলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ধারণা। এর মধ্যে চট্টগ্রাম মহানগরে তিনটি খুনের ঘটনা ঘটেছে আর জেলায় চারটি। খবর- বার্তা

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার আমেনা বেগম (ক্রাইম অপারেশন) বলেন, ‘খুনের পর আমরা কত দ্রুত ব্যবস্থা নিতে পেরেছি সেটিই দেখতে হবে। এগুলো নির্বাচন কেন্দ্রীক কোনো ঘটনা নয়।’

জান যায়, ৭ জানুয়ারি (রোববার) চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলায় ইয়াবা বিক্রির টাকা বণ্টনকে কেন্দ্র করে গুলিতে শীর্ষ সন্ত্রাসী ইউসুফ মনির ওরফে কালা মনির (৩২) খুন হন। প্রতিপক্ষের গুলিতে সে খুন হন বলে পুলিশ জানিয়েছেন।

একই দিন রাত ১২টায় নগরীর ডবলমুরিং মোল্লাপাড়া এলাকা থেকে মহিলার বস্তাবন্ধী মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এছাড়াও পুলিশ নগরীর পুরাতন কন্ট্রোল মোড় এলাকা থেকে মো. ফারুক (২৭) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে।

পাহাড়তলী এলাকায় গণপিটুনিতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক মহিউদ্দিন জুয়েলে (২৫) খুন হন। এ লাশের শরীরে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এটিকে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড বলে দাবি করে তার পরিবার।

৫ জানুয়ারি (শুক্রবার) হাটহাজারী উপজেলার শ্রীকারপুর ইউনিয়নের সালাম সাহেবের বাড়ির পাশের ধানক্ষেত থেকে নুরুল আলম নামে (৫৫) এক ব্যবসায়ীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

৩১ ডিসেম্বর রাতে সীতাকুণ্ড উপজেলার কলেজ মোড় এলাকায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে যুবলীগ নেতা দাউদ সম্রাট (৩৫) নামের একজনকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে রাতে তাকে মৃত ঘোষণা করেন ডাক্তার।

সর্বশেষ ৮ জানুয়ারি মঙ্গলবার ভোর রাতে এমরান হোসেন রিয়াদ (২৮) নামের এক মাদ্রাসা শিক্ষকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশের ধারণা এলাকায় মাদকদ্রব্য বিস্তার রোধ করতে গিয়ে খুন হন এ মাদ্রাসা শিক্ষক। তিনি সীতাকুণ্ড আলিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক। বারভকুণ্ড এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন তিনি। বাসার পাশেই তাকে ছুরিকাঘাতে খুন করে দুর্বৃত্তরা।

জানতে চাইলে চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা বলেন, ‘খুনের ঘটনাগুলো বিছিন্ন ঘটনা। এসব ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা অবনতিরও কিছু নেই। তবে পুলিশ সর্তক রয়েছে। প্রত্যেক ঘটনায় মামলা হয়েছে থানায়। পুলিশ কাজ করছে।’