চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯

রামুতে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের ঘাঁটি থাকার অভিযোগ মিয়ানমারের

প্রকাশ: ২০১৯-০১-০৮ ১৭:১৫:২২ || আপডেট: ২০১৯-০১-০৮ ১৯:৪২:২২

দুই বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা) ও আরাকান আর্মি (এএ) বাংলাদেশে ঘাটি গেড়ে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করছে বলে অভিযোগ করেছে মিয়ানমার। এ বিষয়ে দেশটির প্রেসিডেন্টের দফতরের মুখপাত্র ইউ জে হটাই দাবি করেছেন,আরাকান আর্মি ও আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) কর্মকর্তারা কক্সবাজারের রামুতে ঘাটি গেড়ে গত বছরের জুলাইয়ে বৈঠক করেছে। সেখানে তারা মিয়ানমারের ভেতরে নিজ নিজ অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে তারা আলোচনা করেছেন। তবে বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনের এধরনের কর্মকাণ্ড নাকচ করে দিয়েছে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে ইউ জ হটাই বলেন, বাংলাদেশের নিকটবর্তী ম্যাইউ পর্বতমালার পশ্চিমাঞ্চল নিয়ন্ত্রণ করবে আরসা, আর পূর্বাঞ্চল থাকবে আরাকান আর্মির নিয়ন্ত্রণে বলে দুই গোষ্ঠী একমত হয়েছে। মিয়ানমারের বিভিন্ন অঞ্চলে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে তারা বাংলাদেশের সীমান্ত অঞ্চলে এক হয়ে কাজ করছে।

রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা) রাখাইনে রোহিঙ্গাদের অধিকার সুরক্ষার জন্য মিয়ানমারের বিরুদ্ধে লড়ছে। আর ভিন্ন ভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর অধিকার প্রতিষ্ঠার কথা বলে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে আরাকান আর্মি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকতা জানান, অভিযোগটি বাংলাদেশের নজরে এসেছে।, বাংলাদেশে আরসা বা অন্য কোনও ধরনের সন্ত্রাসী সংগঠনের ঘাঁটি নেই। এই বিষয়ে বাংলাদেশের অবস্থান ‘জিরো টলারেন্স’। মিয়ানমারের এ ধরেনের ভিত্তিহীন অভিযোগে বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানো হবে।