চট্টগ্রাম, , সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯

চুক্তির ২১ বছরেও শান্তি ফেরেনি পাহাড়ে

প্রকাশ: ২০১৮-১২-০২ ১০:৪৪:৪১ || আপডেট: ২০১৮-১২-০২ ১৩:০৮:২৩

পার্বত্য শান্তিচুক্তি স্বাক্ষরের ২১ বছর পূর্তি রোববার (২ ডিসেম্বর)। পাহাড়ে চলে আসা অশান্তি ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর উন্নয়নের জন্য ১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর শান্তিচুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। কিন্তু এই চুক্তির দুই দশক পার হলেও এখনও পুরোপুরি শান্তি ফেরেনি পাহাড়ে। গোলাগুলি, রক্তক্ষয়ী সংঘাত, সংঘর্ষ, চাঁদাবাজি, খুন, গুম ও অপহরণসহ নানা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ঘটেই চলেছে।

আওয়ামী লীগ সরকার তিন দফায় সরকার গঠন করে ২১ বছরে চুক্তির সব শর্ত বাস্তবায়ন করেছে বলে তারা দাবি করে। কিন্তু চুক্তির মৌলিক বিষয়গুলো বায়স্তবায়ন না হওয়ায় পাহাড়ে প্রকৃত শান্তি ফিরে আসছে না বলে দাবি করছে পার্বত্য জনসংহতি সমিতি (জেএসএস)।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের দাবি, জনসংহতি সমিতি শান্তি চুক্তির মাধ্যমে অস্ত্র জমা দিলেও সংঘাতের পথ থেকে সরে আসেনি। একাধিক সংগঠন গড়ে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। মানুষ তাদের কাছে জিম্মি।

তবে রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার বলেন, পাহাড়ে যতদিন অবৈধ অস্ত্র থাকবে, ততদিন সন্ত্রাসী কার্যক্রম বন্ধ হবে না। পাহাড়ের মানুষ অবৈধ অস্ত্রের কাছে জিম্মি। অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার না হলে পুরোপুরি শান্তি আসবে না।

রাঙ্গামাটির সংসদ সদস্য ও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সহ-সভাপতি ঊষাতন তালুকদার বলেন, আমাদের সঙ্গে সরকার চুক্তি করেছে ২১ বছর হলো। কিন্তু, দুঃখের বিষয় এখনও চুক্তি বাস্তবায়নে আন্দোলন-সংগ্রাম করতে হচ্ছে।

জাতীয় মানিবাধিকার কমিশনের সাবেক সদস্য নিরূপা দেওয়ানও মনে করেন, চুক্তির বাস্তবায়ন হলেই পাহাড়ের বিরাজমান সঙ্কট অনেককাংশে কেটে যাবে। তবে চুক্তি বাস্তবায়নে সরকারকেই মূখ্য ভূমিকা রাখতে হবে।

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com