চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮

ফটিকছড়ি অাসনে ভান্ডারী হঠাতে একাট্টা অা.লীগ

প্রকাশ: ২০১৮-১২-০১ ১৫:৪২:১২ || আপডেট: ২০১৮-১২-০১ ২০:১৫:১০

মীর মাহফুজ অানাম
সিটিজি টাইমস প্রতিবেদক

একাদশ নির্বাচনে ফটিকছড়ি অাসন হতে ১৪ দলীয় জোটের মনোনিত প্রার্থী সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারীকে মনোনয়ন দেওয়ার প্রতিবাদে ক্ষোভে ফুঁসছে স্থানীয় উপজেলা অা.লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।

দলের ভেতর বিভাজনসহ নানা অভিযোগের প্রেক্ষিতে  এক বছর পূর্বে ফটিকছড়িতে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা ‘বিতর্কিত ভান্ডারীকে’ হঠাতে এবার একাট্টা অা.লীগ। ভান্ডারীকে মনোনয়ন না দিতে দলীয় হাই কমান্ডকে চিঠি দেওয়ার পরও মনোনয়ন দেওয়ায় এবার প্রকাশ্যে ভান্ডারী হঠাতে মাঠে নেমেছে ফটিকছড়ি উপজেলা অা.লীগ। তারই অংশ হিসেবে অাজ শনিবার ফটিকছড়ি সদরে গণজমায়েত,মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

এতে অা.লীগ, যুবলীগ,ছাত্রলীগসহ অঙ্গসংগঠনের তৃণমূল হতে শুরু করে জেলা উপজেলার বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীরা অংশ নেন। তারা যে কোন বিনিময়ে অা.লীগের নিজেদের পরিক্ষিত অা.লীগ নেতার হাতে নৌকা দেখতে চান।

অাজ সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে মিছিলে মিছিলে দলীয় কার্যালয় প্রাঙ্গনে সমবেত হন অাওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গসংগঠনের শত শত নেতা-কর্মী। পরে দুপুর ১ টার দিকে একজোট হয়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে ভান্ডারীকে নৌকার প্রার্থী হিসেবে অস্বীকৃতি জানিয়ে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়কের উপর মানববন্ধন করে। এরপর বের হয় বিক্ষোভ মিছিল। মিছিলে-‘ভান্ডারীর গালে গালে, জুতা মারো তালে তালে’ এমন নানা স্লোগান দেয় নেতা-কর্মীরা। পরে মিছিলটি উপজেলা সদরের বিবিরহাট বাজারের মূল সড়কে পৌঁছলে পুলিশ বাঁধা দেয়।

এতে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এসময় উত্তেজিত কর্মীর হাতে এক পুলিশ সদস্য অাহত হয়। পরে ওই পুলিশ সদস্যকে হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এরপর পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত হলে মিছিলটি পূণরায় দলীয় কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। অপরদিকে, এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক পুলিশি নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।