চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮

২৫ আসনে জামায়াতকে ছাড় দিল বিএনপি, মনোনয়ন পেলেন যারা

প্রকাশ: ২০১৮-১১-২৮ ০০:১৬:০১ || আপডেট: ২০১৮-১১-২৮ ০০:১৬:০১

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২০ দলীয় জোটের শরিক জামায়াতে ইসলামীর নেতাদের জন্য ২৫টি আসন ছেড়ে দিয়েছে বিএনপি।

মঙ্গলবার রাতে ২০ দলীয় জোটের নির্ভরযোগ্য একটি সূত্রে এই খবর জানা গেছে।

মনোনয়নপ্রাপ্তরা হলেন: চট্টগ্রাম-১৫ আসনে শামসুল ইসলাম, সিরাজগঞ্জ-৪ আসনে রফিকুল ইসলাম খান, ঠাকুরগাঁও-২ আসনে আব্দুল হাকিম, দিনাজপুর-১ আসনে মোহাম্মদ হানিফ, দিনাজপুর-৬ আসনে আনোয়ারুল ইসলাম, নীলফামারী-২ আসনে মনিরুজ্জামান মন্টু, নীলফামারী-৩ আসনে আজিজুল ইসলাম, রংপুর-৫ আসনে গোলাম রব্বানী, গাইবান্ধা-১ আসনে মাজেদুর রহমান সরকার, পাবনা-৫ আসনে ইকবাল হুসেইন, ঝিনাইদহ-৩ আসনে মতিউর রহমান, কুমিল্লা-১১ আসনে সৈয়দ আবদুল্লাহ মো. তাহের, কক্সবাজার-২ আসনে হামিদুর রহমান আজাদ ।

যশোর-২ আসনে আবু সাঈদ মুহাম্মদ শাহাদত হোসাইন, বাগেরহাট-৩ আসনে আব্দুল ওয়াদুদ, বাগেরহাট-৪ আসনে আবদুল আলিম, খুলনা-৫ আসনে মিয়া গোলাম পরওয়ার, খুলনা-৬ আসনে আবুল কালাম আযাদ, সাতক্ষীরা-৩ আসনে রবিউল বাশার, সাতক্ষীরা-২ আসনে আব্দুল খালেক, সাতক্ষীরা-৪ আসনে গাজী নজরুল ইসলাম, পিরোজপুর-১ আসনে শামীম সাঈদী, সিলেট-৫ আসনে ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী, সিলেট-৬ আসনে হাবিবুর রহমান ও ঢাকা-১৫ আসনে শফিকুর রহমান।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের ১ আগস্ট জামায়াতে ইসলামীর নিবন্ধন বাতিল ও অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেন হাইকোর্ট। গত ২৮ অক্টোবর জামায়াতের নিবন্ধন বাতিল করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তাই দল হিসেবে নির্বাচন করার সুযোগ নেই জামায়াতের।

তবে জামায়াত নেতারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে কিংবা নিবন্ধিত অন্য কোনো দলের প্রার্থী হয়ে সেই দলের প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করতে পারবেন। এ বিষয়ে ৯ নভেম্বর ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, অনিবন্ধিত কোনো দল নিবন্ধিত কোনো দলের সঙ্গে জোটগতভাবে নির্বাচন করতে চাইলে ইসির কিছু করার থাকবে না। এই বিষয়ে আইনে কোনো ব্যাখ্যা নেই। সর্বশেষ জানা যাচ্ছে, জামায়াত নেতারা ধানের শীষ প্রতীক নিয়েই এবারের নির্বাচনে লড়বেন।