চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮

পাঠাওয়ের আইটি বিশেষজ্ঞসহ ৮ জঙ্গি গ্রেপ্তার

প্রকাশ: ২০১৮-১১-২৬ ১৫:৫৫:২০ || আপডেট: ২০১৮-১১-২৬ ১৫:৫৫:২০

নির্বাচনে জঙ্গি তৎপরতা ঠেকাতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান পাঠাওয়ের আইটি বিশেষজ্ঞসহ ৮ জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব।

র‌্যাব জানায়, রোববার গভীর রাতে নির্বাচনে নাশকতা ঠেকানোর ধারাবাহিকতার ভিত্তিতে র‍্যাব-১, র‍্যাব-২ যৌথ অভিযানে রাজধানীর মোহাম্মদপুর, কাটারা ও কলাবাগান হতে জেএমবির রেডিক্যাল ইয়ুথ গ্রুপের সক্রিয় আট সদস্যকে গ্রেপ্তার করে।

সোমবার কারওয়ান বাজারের র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন র‍্যাবের লিগ্যাল ও মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান।

আটকৃত আট জঙ্গি সদস্য হলেন- আরাফাত আজম (৩০), রাশেদ আলম বাঁধন (২৮), মীর আফজাল আলী (৩৭), মাহাদী হাসান(২৩), বদিউজ্জামান হাওলাদার অনিক (২৭), জামাল উদ্দিন শোভন(২৮), জারির তাইসির (২৬),আসিফুর রহমান (২৮)।

মুফতি মাহমুদ খান বলেন, ‘এদের মধ্যে আরাফাত আজম পেশায় একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। সে ২০১৬ সালে বেসরকারি একটি বিশ্ববিদ্যালয় হতে সিএসই সম্পন্ন করে বর্তমানে পাঠাওতে আইটি এক্সপার্ট হিসেবে কর্মরত রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘গোয়েন্দা সূত্রে জানা যায়, প্রথম অবস্থায় রেডিক্যাল ইয়ুথ গ্রুপটি মোহাম্মদপুর এলাকায় ঘাটি তৈরি করলেও পরে রাজধানীর কলাবাগান, কাটারা এলাকাসহ ঢাকায় বেশ কয়েকটি স্থানে তাদের নেটওয়ার্ক ছড়িয়ে দেয়।’

মুফতি মাহমুদ বলেন, তামিম গ্রুপের সক্রিয় সদস্য বাশারুজ্জামান চকলেট সঙ্গে যোগাযোগ ছিল এই গ্রুপের অন্তত তিনটি সদস্যের। যারা ২০১৪-২০১৫ সালে জেএমবিতে যোগ দেয়। এরা সবাই উচ্চশিক্ষিত স্বনামধন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা করতো।

‘গত ৭-৮ মাস তাদের উপর নজরদারি রাখা হয়। পরে গতকাল র‍্যাব তাদের গ্রেপ্তার করে। সংগঠনটি আমীরের মাধ্যমে কার্যক্রম পরিচালনা করে। আটককৃত ৮ জনের মধ্যে সাবেক ৩ জন এবং বর্তমানে ২ জন আমীর রয়েছে।’

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মুফতি মাহমুদ জানান, জেএমবির এই সদস্যরা বিভিন্ন পেশায় অভিজ্ঞতা সম্পন্ন। তারা বড় ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা করছিল।