চট্টগ্রাম, , সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮

‘ক্রাউন রিজ এপিক’-এর হোম ফিয়েস্তা মেলায় ফ্ল্যাট ক্রেতাদের ভীড়

প্রকাশ: ২০১৮-১১-১৯ ১৮:০২:০৪ || আপডেট: ২০১৮-১১-১৯ ২১:০৫:১৮

মেলায় আগত আগ্রহী ফ্ল্যাট ক্রেতাদের বিভিন্ন অ্যাপার্টমেন্ট সম্পর্কে সম্যক ধারণা দিচ্ছেন এপিক প্রপার্টিজের বিপণন কর্মকর্তারা

নগরীর অভিজাত এলাকা দক্ষিণ খুলশীতে গড়ে উঠা ‘ক্রাউন রিজ-এপিক’-এ আয়োজিত মেলায় ভীড় আগ্রহী ফ্ল্যাট ক্রেতাদের। ১১দিন ব্যাপী মেলার ৪র্থ দিনে আজ (সোমবার) বিকেলে দেখা গেছে নানা পেশার অভিজাত মানুষজন সপরিবারে ভীড় করেছে ক্রাউন রিজ-এর আঙ্গিনায়।

এপিক প্রপার্টিজের কর্মকর্তারা বলছেন, এপিক বিগত ১৬ বছর ধরে চট্টগ্রামসহ সারাদেশে আবাসনখাতের একজন উজ্জ্বল নাম। এপিক নিজেদের নির্মিতব্য প্রত্যেকটি প্রকল্পে প্রতিবছর হোম ফিয়েস্তা করে থাকে। কিন্তু এবারের বিগত সময়ের সব মেলাকে হার মানিয়েছে। এবার আগ্রহী ফ্ল্যাট ক্রেতাদের প্রচুর সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। কারণ এবার মেলাটি অন্যসময়ের চেয়ে ব্যতিক্রম। ক্রাউন রিজ-এপিক একটি আইকনিক প্রকল্প। এটি একটি স্বপ্নের আবাস বলা যাবে। পাহাড় চূড়ায় সবুজের আচ্ছাদনে তৈরি প্রকল্পে রয়েছে দৈনন্দিন জীবনের সব ধরণের সুযোগের সন্নিবেশ। মেলা উপলক্ষে রয়েছে বিশেষ অফার। ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এ মেলা দর্শনার্থীদের জন্য উম্মুক্ত থাকছে।

মেলা ঘুরে জানা গেছে, নগরীর দক্ষিণ খুলশীর ইস্পাহানি হিলে নির্মিত টাওয়ারে চলছে শেষ মুহুর্তের কাজ। ৯ তলা বিশিষ্ট দুটি টাওয়ারে চট্টগ্রামের সবচেয়ে আকর্ষনীয় ফ্ল্যাটগুলোতে সংযোজন ঘটছে আধুনিক সব সুযোগ সুবিধা। টাওয়ারের নীচ তলায় বিশাল পরিসরে চলছে মেলা। এখানে আগ্রহী ক্রেতাদের প্রকল্পের নানান দিক তুলে ধরছেন এপিক প্রপার্টিজের চৌকষ তরুণ এক ঝাঁক বিপণন কর্মী।

মেলা সূত্রে জানা যায়, ‘চট্টগ্রামে সবচেয়ে আধুনিক দৃষ্টিনন্দন প্রকল্প হিসেবে তৈরি হচ্ছে ক্রাউন রিজ এপিক। ‘ক্রাউন রিজ এপিক’-এর দুটি টাওয়ারে প্রতি ফ্লোরে ৩টি ও ৪টি করে মোট ৭টি ফ্ল্যাটের জন্য থাকছে সুপরিসরের চারটি লিফট। থাকছে ওয়াই-ফাই জোন, গরম ও শীতল পানির সুবিধা, আধুনিক অগ্নি নির্বাপন ব্যবস্থা, সুইমিংপুল, জিমনেশিয়াম, বারবিকিউ কর্ণার, মাস্টার বেডে থাকছে সার্ভেন্ট কলিং বেল, ও পুরো ভবনের নিরাপত্তায় সংযোজন থাকছে সিসিটিভি।

এপিক প্রপার্টিজের হেড অব সেলস এন্ড মার্কেটিং খুরশিদ আলম বলেন, ‘সারাদিনের পরিশ্রম করার পর নীড়ে ফিরে ক্লান্তি দূর করে শরীর একটু শান্তি খুঁজে। এসময় যদি মেলে প্রাত্যহিক সুবিধার সবটুকু। তা নিশ্চিতভাবে পূরণ করতে পারবে ‘ক্রাউন রিজ’। তাছাড়া অবসরে যাওয়া মানুষরা চায় একটু আরাম-আয়েশে, স্বাচ্ছ্যন্দে জীবনের অবশিষ্ট সময়টুকুন পার করতে। সবমিলিয়ে সবার জন্যই সুযোগ নিয়ে এসেছে এপিক। ক্রাউন রিজ-এর অ্যাপার্টমেন্টগুলোতে পাঁচ তারকা মানের সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যাবে। প্রকল্পের চারিদিকে সবুজে ঘেরা পরিবেশ। পাহাড় চূড়ায় হওয়ার কারণে জানালা খুললেই নীল আকাশ চোখ জুড়োবে যে কারোর। এ মেলায় বর্গফুট থেকে ৪২২৫ বর্গফুটের রেডি ও অনগোয়িং ফ্ল্যাট পাওয়া যাচ্ছে।’

কথা হলে মেলায় আসা ব্যাংকার শাহানাজ চৌধুরী বলেন, ‘আমরা এমনিতে খুলশীতে ভাড়া বাসায় থাকি। এখন নিজেদের জন্য একটি ফ্ল্যাট কেনার প্রয়োজন পড়েছে। তাই এপিকের হোম ফিয়েস্তাতে এসেছি। পুরো অ্যাপার্টমেন্টটি একটি আধুনিক অ্যাপার্টমেন্ট। আমার সাথে আমার দুই বাচ্চাও এসেছে। পরিবারের সবার সাথে আলাপ করে একটি ফ্ল্যাট নেব আশা করছি।’

মেলায় আসা ব্যবসায়ী সায়েদুর রহমান বলছেন অন্য কথা। তিনি বলেন, ‘নগরীতে ধীরে ধীরে সবুজ কমে যাচ্ছে। সবুজ না থাকলে আমাদের অক্সিজেন পাওয়ার সুযোগ কমে যাবে। ক্রাউজ রিজ-এপিক অ্যাপার্টমেন্ট ভবনটি পাহাড়চূড়ায়। অ্যাপার্টমেন্টটিতে অন্তত কিছুটা হলেও প্রকৃতির রূপ উপলব্ধি করা যাবে। তারপরেও এপিক একটি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান। আমার কয়েকজন আত্মীয়ও তাদের ফ্ল্যাট নিয়েছে। সবার মুখে এপিকের সুনাম শুনে মেলায় এসেছি।’

এপিক প্রপার্টিজের পরিচালক প্রকৌশলী আনোয়ার হোসেন জানান, ‘ক্রাউন রিজ এপিক আমাদের একটি ¯^প্নের প্রকল্প। একটি পরিবেশবান্ধব প্রকল্প এটি। রয়েছে আধুনিক সব সুযোগ-সুবিধা। মাঝারি থেকে বড় আকারের অ্যাপার্টমেন্ট পাওয়া যাবে ক্রাউন রিজ-এ।