চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮

চট্টগ্রামে তরুণ ভোটারের সংখ্যা ৬ লাখ

প্রকাশ: ২০১৮-১১-১৭ ০৯:৩৯:২৫ || আপডেট: ২০১৮-১১-১৭ ১১:৫১:২৩

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রামে বেড়েছে ভোটারের সংখ্যা। প্রথমবারের মত ভোট দেয়ার যোগ্য হয়েছে ছয় লাখের বেশি নতুন প্রজন্মের ভোটার। রাজনৈতিক দল গুলোর মধ্যে যারা তরুণ ভোটারদের নিজেদের পক্ষে টানতে পারবে ১৬টি সংসদীয় আসনে ভোটযুদ্ধে তারাই জয় পাবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। আর তরুণ ভোটাররা বলছেন, সৎ, যোগ্য ও নেতৃত্ব গুণাবলী সম্পন্ন যোগ্য প্রার্থীকেই নির্বাচিত করতে চান তারা। খবর সময়

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রামের ১৬টি সংসদীয় আসনে ভোটার ছিল ৫০ লাখ ২৯ হাজার ১শ ১৩ জন। আর সবশেষ নতুন ভোটার তালিকা অনুযায়ী ভোটার সংখ্যা ৫৬ লাখ ৩৯ হাজার ৩শ ৬৩ জন। পাঁচ বছরের ব্যবধানে ভোটার বেড়েছে ছয় লাখ ১০ হাজার ২৫০ জন। এর বেশির ভাগই নতুন প্রজন্মের ভোটার।

চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুনীর হোসাইন খান বলেন, কিছুদিন আগে ভোটার তালিকা প্রকাশ করেছি। নতুন ভোটারের সংখ্যা ৬ লাখেরও বেশি।

প্রথমবারের মত ভোটার হয়ে খুশি তরুণরা। তারা চায় সৎ, যোগ্য প্রার্থীকেই নির্বাচিত করতে।

ভোটাররা জানান, নতুন ভোটার হিসেবে আমরা সৎ ও যোগ্য প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে চাই। সে সাথে বাংলাদেশ বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারে।

তবে তরুণদের ভোটের ব্যাপারে আশাবাদী আওয়ামী লীগ ও বিএনপি দলই।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, ডিজিটাইলেশনের যে সুবিধা যেটা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করেছেন। সেটার সুবিধা তরুণরা পাচ্ছেন। যে কারণে তারা আওয়ামী লীগকেই ভোট দিবেন।

মহানগর বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান বলেন, এই নতুন প্রজন্ম বর্তমান ক্ষমতাসীনদের কাছ থেকে ভাল কিছু দেখেননি। তাই তারা বিএনপিকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করবে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, অসাম্প্রদায়িক ও দুর্নীতির ঊর্ধ্বে থেকে কাজ করবে এমন আস্থা ও বিশ্বাস যে রাজনৈতিক দল অর্জন করতে পারবে তরুণ প্রজন্মের ভোট তাদের দিকেই যাবে।।

রাজনৈতিক বিশ্লেষক দেলোয়ার হোসেন মজুমদার বলেন, আধুনিক প্রযুক্তিকে ধারণ করবেন। এবং তরুণ নেতৃত্বকে মেনে নিবেন। এই ধরনের আস্থা অর্জন করতে পারেন। তাহলে তরুণ সমাজের ভোট টানতে পারবেন।

ভোট সংখ্যা বাড়ায় চট্টগ্রামে নতুন করে ভোটকেন্দ্র বেড়েছে ৫৮টি। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম জেলায় ভোটকেন্দ্র ছিল ১৮৪০টি। এবার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১হাজার ৮শ ৯৮ টি।