চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮

নির্বাচনে অংশ নিবে ঐক্যফ্রন্ট

প্রকাশ: ২০১৮-১১-১১ ১৩:২৯:০৪ || আপডেট: ২০১৮-১১-১১ ১৫:০৮:৩৩

আগামী ২৩ ডিসেম্বর হতে যাওয়া একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপি, গণফোরাম, জেএসডি ও নাগরিক ঐক্যের সমন্বয়ে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

রবিবার (১১ নভেম্বর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ ঘোষণা দেন জোটের শীর্ষ নেতা ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন।

এর আগেই সাংবাদিকদের লিখিত বক্তব্য হস্তান্তর করা হয়েছে। এতে নির্বাচন এক মাস পিছিয়ে নতুন তফসিল ঘোষণার দাবি করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মলেনের শুরুতে ড. কামাল হোসেন বলেন, আন্দোলনের অংশ হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলীয় জোটের। তবে সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের স্বার্থে তফসিল এক মাস পিছিয়ে নতুন তফসিল ঘোষণা করতে হবে নির্বাচন কমিশনকে।

তিনি দেশবাসীকে ঐক্যফ্রন্টের অধীনে দেশবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

পরে ড. কামাল হোসেনের লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পক্ষে নির্বাচনে অংশ নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া খুবই কঠিন। কিন্তু এরকম ভীষণ প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনের অংশ হিসেবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘তবে আমাদের ৭ দফা দাবি থেকে সরে আসছি না। আমরা ৭ দফা দাবিসহ নির্বাচনের বর্তমান তফসিল একমাস পেছানোর দাবি জানাচ্ছি। দাবি আদায়ের আমাদের সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে।’

জোটগতভাবে একক প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেয়ার ব্যাপারে পরে জানানো হবে বলেও জানান মির্জা ফখরুল।

মির্জা ফখরুল বলেন, এরপরও সরকার আমাদের দাবি না মানলে কঠোর আন্দোলনের মাধ্যমে দাবি আদায় করা হবে। এতে দেশে যা ঘটবে এর দায়ভার সরকারের।

সংবাদ সম্মেলনের শেষ দিকে ঐক্যফ্রন্টের নেতা আ স ম আব্দুর রব বলেন, দাবি আদায়ে আন্দোলনের কোনো বিকল্প নেই।