চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২২ নভেম্বর ২০১৮

জাপা জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচন করবে: কাদের

প্রকাশ: ২০১৮-১১-০৫ ২৩:০৩:৫৬ || আপডেট: ২০১৮-১১-০৬ ১১:২৯:২৪

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ১৪ দল ও জাতীয় পার্টি জোটগতভাবে নির্বাচন করবে। জোটগতভাবেই সরকার গঠন করা হবে। সংলাপে তাদের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

সোমবার রাতে গণভবনের সামনে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।

এর আগে গণভবনে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জাতীয় পার্টির সংলাপ হয়। সংলাপে জাতীয় পার্টির ৩৪ সদস্যের নেতৃত্ব দেন এইচএম এরশাদ।

সংলাপ শেষে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আগামী নির্বাচন আইন ও সংবিধান সম্মতভাবে হবে। ১৪ দলীয় জোটের মতোই জাতীয় পার্টি ও তাদের সম্মীলিত জাতীয় ঐক্যজোট একমত।’

তবে সংলাপে আসন বণ্টনের বিষয়ে ১৪ দল ও জাতীয় পার্টির সঙ্গে আওয়ামী লীগের কোনো আলোচনা হয়নি বলে দাবি করেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘জাপার অল্প কয়েকজন সংলাপে এসেছেন। আসন বণ্টন নিয়ে তাদের সঙ্গে কোনো কথা হয়নি।’

তবে তিনি জানান, আসন বিন্যাস বিষয়ে ছোট একটি কমিটি করা হবে। তারপরে তালিকা করা হবে। এই তালিকা অনুসারে দেখা হবে, সম্ভাব্য প্রার্থীর পক্ষে জনসমর্থন আছে কিনা? যদি জনসমর্থন থাকে, তাহলে তাকে দলীয়ভাবে মনোনয়ন দেয়া হতে পারে।

জাতীয় পার্টি আলাদা নির্বাচন করবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘রাজনীতিতে যেভাবে মেরুকরণ হবে, সেভাবে জোটের সমীকরণও হবে।’

তিনি বলেন, ‘সংলাপ ভালো হয়েছে। বেশকিছু বিশেষ ছাড় দেয়া হয়েছে। যেমন: সভা-সমাবেশ, লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড। নির্বাচন কমিশনের আচরণবিধি মানতে গিয়ে লেবেল প্লেয়িং ফিল্ডের জন্য যা কিছু করা যায়, তা আমরা করব।’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দাবির পরিপেক্ষিতে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘যদি কেউ রাজবন্দির হয়ে থাকেন এবং প্রমাণ থেকে থাকে অথবা শুধুমাত্র রাজনৈতিক কারণে কেউ গ্রেফতার হন, সেক্ষেত্রে আমরা তালিকা চেয়েছি। আগামী ৭ তারিখ সকালে রাজবন্দিদের তালিকা দেবে কি না, সে বিষয়ে আমি জানি না।’

এদিকে, জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের সাংবাদিকদের বলেন, ‘সংলাপে সুনির্দিষ্ট কোনো দাবি জানাইনি আমরা। সংবিধানের আলোকেই নির্বাচনের দাবি জানিয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘সবদলের অংশগ্রহণের নির্বাচনী পরিবেশ তৈরি হলে জোটবদ্ধ হয়ে আমরা নির্বাচন করব। আর তা নাহলে ৩০০ আসনে প্রার্থী দেব।’